অধিনায়কত্বের চাপ মিডিয়ার বানানো : তামিম

ওয়ানডে ক্রিকেটে অধিনায়কের দায়িত্ব তিনি পেয়েছেন ৯ মাসের মতো হলো। কিন্তু মজার বিষয় হলো, করোনার কারণে এখন পর্যন্ত একটি ম্যাচেও অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সুযোগ পাননি তামিম ইকবাল। কিন্তু তারপরও তার অধিনায়কত্ব নিয়ে হয় কাটাছেড়া, চলে চুলচেরা বিশ্লেষণ। আর সেটা লঙ্কান সফরে অনানুষ্ঠানিক অধিনায়ক হিসেবে তিন ম্যাচের সিরিজের হোয়াইটওয়াশ হওয়ার কারণে। আর সম্প্রতি প্রেসিডেন্টস কাপের তার দল ফাইনালে উঠতে না পারায়।

জাতীয় দলের হয়ে কোনো ম্যাচে আনুষ্ঠানিকভাবে অধিনায়ক হিসেবে দেখা যায়নি তামিমকে। তারপরও ব্যর্থতার আলোচনা কেন? শনিবার ফরচুন বরিশালের হয়ে প্র্যাকটিস করার পর সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। যেখানে অধিনায়কত্বের চাপ প্রসঙ্গ উঠতেই যেন বিরক্ত হলেন তামিম। সরাসরি বলেই দিলেন, ‘এটা মিডিয়ায় বানানো। আমি তো কোনো ম্যাচ অধিনায়ক হিসাবে খেলিই নাই।’

এ প্রসঙ্গে তামিম মিরপুরে বলেন, ‘অধিনায়কত্বের চাপ… আমি তো এখনো পর্যন্ত ওই রকম কোনো চাপের ম্যাচই খেলিনি! প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট হতে হবে তো… অধিনায়কত্বের চাপ এটা আসলে আপনাদের (সাংবাদিকদের) বানানো। আমি এখনো কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলিনি (দায়িত্ব পাওয়ার পর)।’

অধিনায়কত্বের বিচার হয় ধীরে ধীরে। তিনি বলেন, ‘আমি যেদিন অধিনায়কত্ব পেয়েছি, ওই দিনই বলেছি যে, আপনারা বিচার করবেন ছয় মাস বা এক বছর পর। পৃথিবীর যত বড় অথবা ছোট নেতাই হোক, দুই ম্যাচ-তিন ম্যাচ পর আপনারা (সাংবাদিকরা) শুরু করে দেন ক্যাপ্টেন্সির চাপ… এটা শুধু আমার ব্যাপার নয়, যে কারো ক্ষেত্রেই।’

তিনি বলেন, ‘একটা বাচ্চা হাঁটতে কিন্তু ৯ মাস সময় নেয়… এক দিনে না হাঁটলে তো আপনি বলতে পারেন না যে সে হাঁটতে পারে না। সময় লাগবেই। অধিনায়কত্ব আমার খেলায় কতটা প্রভাব ফেলছে, সেটা অন্তত ২০ ম্যাচ পর বিচার করবেন,… কিংবা ১০-১৫ ম্যাচ পর। দুই-তিন ম্যাচ পর সেটা করতে পারেন না।’


আরও পড়ুন


নেতৃত্ব নিয়ে কোনো সমস্যা নেই তামিমের। তাও অকপটে স্বীকার করলেন, ‘আমার কোনো সমস্যা হয় না ভাই (নেতৃত্বের চাপ নিয়ে)… ওটা নিয়ে এত চিন্তাও করি না। নেতৃত্ব নিয়ে অনেকবারই বলেছি, এটা এমন নয় যে ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখেছি। কখনোই স্বপ্ন দেখিনি দেশের অধিনায়ক হওয়ার। বরং সুযোগটা এসেছে আমার কাছে। চেষ্টা করব ভালোভাবে করতে।’

কেমন হতে পারে অধিনায়কত্ব পর্ব? সেটা সময়ের হাতেই ছেড়ে দিলেন তামিম, ‘ভালো হবে বা খারাপ, সেটা সময়ই বলবে। অধিনায়ক আমি হই বা পরে যে হোক, কিংবা আগে যে ছিল… ভালো বা সফল অধিনায়ক হতে হলে অনেক সময় দিতে হবে। এক সিরিজ বা দুই সিরিজে আপনি যদি মনে করেন কাজ হচ্ছে না, এটা আসলে কারো জন্য ভালো নয়। শুধু নিজের দেখে বলছি না। আমার জন্য, দলের জন্য, দেশের জন্য, কারো জন্যই ভালো নয়। কিছু সময় দিতেই হবে।’

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

লেখক

সর্বশেষ সংবাদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসায় কমনওয়েলথ মহাসচিব

কমনওয়েলথের মহাসচিব প্যাট্রিসিয়া স্কটল্যান্ড বাংলাদেশের বিগত এক দশকের ‘অসামান্য অর্জনের’ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করে এই উন্নয়নের জন্য তাকে সম্পূর্ণ কৃতিত্ব দিয়েছেন।...

বগুড়ায় কিশোরী ধর্ষণ মামলার দুই সহযোগী কারাগারে

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলার দুই ব্যক্তি কে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। ৪ ডিসেম্বর তাদের ধুনট থানা থেকে বগুড়া জেলা...

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে স্বর্গীয় পরিমল চন্দ্র বর্মনের মৃত্যুতে শোক ও স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে স্বর্গীয় পরিমল চন্দ্র বর্মনের অকাল মৃত্যুতে এবং তার বিদেহী আত্নার শান্তি কামনায় বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট পঞ্চগড় জেলা শাখার আয়োজনে স্মরণ সভা...

গাঁজাকে বিপজ্জনক মাদকের তালিকা থেকে বাদ

চিকিৎসা সংক্রান্ত গবেষণা কাজে গাঁজার ব্যবহার সহজলভ্য করতে নেওয়া হলো এ সিদ্ধান্ত নেশাজাতীয় বিপজ্জনক মাদকের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে গাঁজার নাম। চিকিৎসা কাজে গাঁজার...
%d bloggers like this: