অবৈধভাবে চাঁদার দাবী; না দেওয়ায় রাস্তায় গাড়ী আটক, পরে থানায় এজহার দায়ের

মাফি মহিউদ্দিন, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী) প্রতিনিধি।।

নীলফামারী জেলাধীন কিশোরগঞ্জ ও তারাগঞ্জ যাওয়ার রাস্তায় কেল্লাবাড়ী নামক বাজারে বালু বোঝাই ট্রাক প্রায় ৪ ঘন্টা আটক করে রাখে কিছু চাঁদাবাজ।

এজহার সূত্রে জানা যায়, যে সরকার কর্তৃক ২০১৮/১৯ অর্থ বছরে পানি উন্নায়ন বোর্ড কর্তৃক নদী খনন প্রকল্পে কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ৩৮ টি বালুর পয়েন্ট করে নিলাম বিজ্ঞপ্তি আহবান করে কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ।
সেখান থেকে নিলামে বিক্রি করা বালুর ৩১ নং বালুর লটটি সৈয়দপুর উপজেলার নিয়ামতপুর এলাকার জিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক জিয়াউর রহমান জিয়া, ১ জুন ২০২১ ইং তারিখে সরকারী বিধি মোতাবেক ৯ লক্ষ ৯৮ হাজার ১শত ২৫ টাকা নগত অর্থ বুঝিয়ে দিয়ে ৩১ নং বালুর লট ক্রয় করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাছ থেকে নিলামকৃত বালু অপসরনের অনুমুতি নিয়ে তিনি বালু বিক্রি শুরু করেন।
কিন্তু কিছু চাঁদাবাজ অবৈধ ভাবে জিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক জিয়াউর রহমান জিয়ার কাছে চাঁদা দাবী করে। তিনি চাঁদা না দেওয়ায় গত ২৬ জুলাই রাত প্রায় ১২ টার দিকে তার ৩১ নং বালুর পয়েন্টে চাঁদা নেয়ার জন্য ছোড়া, লাঠি নিয়ে প্রায় ২০ জন চাঁদাবাজ সেখানে যায় এবং চাঁদাদাবী করে। তাতেও জিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক জিয়া তাদের কোন চাঁদা দেননি।


আরও পড়ুন>>


তখন চাঁদাবাজের দলটি ২৭ জুলাই কিশোরগঞ্জ ও তারাগঞ্জ যাওয়ার কেল্লাবাড়ী নামক বাজারে বালুর ট্রাক আটক করে প্রায় কয়েক ঘন্টা অতিবাহিত করে। পরে সেখান থেকে জাতীয় হেল্প লাইন ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে।
জাতীয় হেল্প লাইন ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে কিশোরগঞ্জ থানার দ্বায়িত্বে থাকা এস আই অর্পূর্ব ঘটনা স্থলে গিয়ে ড্রাইভার ও গাড়ীর চাবী উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

(ক) পতিরাম চন্দ্র (খ) চাঁদখানা ইউনিয়নের জাহান আলীর ছেলে আব্দুল বারেক (গ) স্বপন চন্দ্র মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান স্বামী( ঘ) হাসান আলী (ঙ) রিগান (চ) বাচ্চু (ছ) কহিদুল (জ) শাকিল (ঝ) রাশেদুজ্জামান (ঞ) গুলজার হোসেন রাত্রি ১২ টার সময় ৩১নং বালুর লটে এসে তারা তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে ও বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়। চাঁদা না দিলে তাদের সমস্যা হবে।

তাদের কথায় কোন কর্ণপাত না করে জিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক বালু পরিবহন অব্যাহত রাখেন। তাদের কোন টাকা পয়সা দিতে পাবে না বলে অস্বীকৃতি জানান।

জিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক জিয়াউর রহমান জিয়া দশজনকে আসামী করে কিশোরগঞ্জ থানায় একটি এজহার দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনর্চাজ আব্দুল আউয়াল বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ