অভাবের কথা অকপটে স্বীকার করলেন সালমান

- Advertisement -

বলিউড তারকাদের জীবন নিয়ে সাধারণ মানুষের থাকে নানা রকম চিন্তাভাবনা। অনেকেই মনে করেন, তারকারা সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্ম নেন। আর সেভাবেই তারা কাটান তাদের জীবন। তবে সবার এমন ধারণাও যে ভুল, তা-ই প্রমাণ করে মাঝে মাঝে তারকাদের দেয়া কোনো বক্তব্য। এবার এমনই এক ভিডিও সামনে এসেছে সবার, যা দেখে অবাক হয়েছে সবাই।

কখনো কি ভেবে দেখেছেন, বলিউড সুপারস্টার সালমান খান ছিলেন অভাবে? এমনকি নিজের জন্য কাপড় কেনারও সামর্থ্য ছিল না তার। সম্প্রতি প্রকাশ পাওয়া এক ভিডিওতে এভাবেই নিজের অভাবের কথা স্বীকার করেছেন সালমান খান। আর জানিয়েছেন, সেই বিপদের সময় তাকে বলিউডের কোন অভিনেতা সাহায্য করেছিলেন।

এই মাসের শুরুতে, আবুধাবির ইয়াস আইল্যান্ডে ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়া ফিল্ম একাডেমি অ্যাওয়ার্ডস (আইফা) অনুষ্ঠিত হয়েছিল। অ্যাওয়ার্ড শো-টি ২৫ জুন রাত ৮টায় ভারতীয় এক বেসরকারি টেলিভিশনে সম্প্রচার করা হবে। এরই প্রচারণায় সেই টিভি চ্যানেল থেকে ইনস্টাগ্রামে একটি প্রোমো ক্লিপ শেয়ার করেছে। সেখানে দেখা যায়, উপস্থাপক রিতেশ দেশমুখ সালমান খানকে জিজ্ঞাসা করেন, ‘আপনার জীবনের সবচেয়ে স্মরণীয় মুহূর্ত কোনটি?’ উত্তরে সালমানকে দেখা যায় কথা বলতে বলতে তিনি কাঁদছেন। সালমান বলেন, জীবনে একসময় আর্থিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল তাকে। তখন দামি কাপড়, জুতা কেনার মতো টাকা ছিল না তার। তখন তিনি বলিউড অভিনেতা সুনীল শেঠির কাপড়ের দোকানে যেতেন। সালমান একটি শার্ট দেখেন, যেটি খুব ব্যয়বহুল ছিল।

সালমান আরও বলেন, ‘তখন আমি একটি শার্ট বা এক জোড়া জিন্স ছাড়া আর কিছু কিনতে পারতাম না। সেই সময় সুনীল লক্ষ করেছিলেন যে আমার কাছে টাকা নেই। তাই তিনি আমাকে একটি শার্ট উপহার দেন। তিনি একটি ম্যানিব্যাগও আমাকে উপহার দিয়েছিলেন, যা আমার চোখে আটকে গিয়েছিল। সুনীল বুঝতে পেরেছিলেন, সেটা আমার পছন্দ হয়েছে।’ এ কথা বলতে বলতেই সালমানের চোখ থেকে অঝোরে পানি পড়তে থাকে আর তখনই সালমান সুনীলের ছেলে আহন শেঠির কাছাকাছি চলে গেলে। অহন উঠে সালমানকে জড়িয়ে ধরেন।

এমন একটি ভিডিও প্রকাশ হওয়ার পর মুহূর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সালমানভক্তরাও বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন প্রিয় তারকার এমন কথা শুনে। এর মধ্যে কেউ কেউ সুনীলেরও বেশ প্রশংসা করেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ