আর কেউ মিসকিন বলবে না: অর্থমন্ত্রী

0
21
আর কেউ মিসকিন বলবে না: অর্থমন্ত্রী
আর কেউ মিসকিন বলবে না: অর্থমন্ত্রী

স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বেরিয়ে বাংলাদেশ ‘তলাবিহীন ঝুড়ির অভিশাপ থেকে মুক্তি পেয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

মঙ্গলবার (০২ মার্চ) রাজধানীর মতিঝিলে সোনালী ব্যাংক ভবনে বঙ্গবন্ধু কর্নারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

এসময় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু এদেশের মানুষকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। সার্বভৌম দেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ পেয়েছিল শক্ত ভিত্তি।

বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি নিশ্চিতের মাধ্যমে সোনার বাংলা গড়ে তুলতে। কিন্তু সেটি তিনি করতে পারেরনি। কিন্তু তার কন্যার হাত ধরেই সেই অর্থনৈতিক মুক্তির পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। যার প্রমাণ গত ২৬ ফেব্রুয়ারি এলডিসি তালিকা থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় যাওয়ার সুপারিশ মিলেছে। সবার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ এটা অর্জন করেছে বলে মন্তব্য করেন আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি আরও বলেন, আমরা এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নই। আমরা গরিবও নই। এসময় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্বে যে কয়টি দেশ করোনা মহামারি মোকাবিলার পাশাপাশি ইতিবাচক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে তারমধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।


আরও পড়ুন>>


অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, এখন আর রাষ্ট্রায়ত্ব কোনো ব্যাংক মূলধনের যোগান বাড়াতে সরকারের কাছে টাকা চায় না। দুই শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে ঋণ আদায়ের সরকারি সিদ্ধান্তের ফলে ব্যাংকগুলো ভালো অবস্থানে রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আতাউর রহমান প্রধান। এছাড়া দুই শতাংশ ইনসেনটিভ দেয়ার ফলে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভেও ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে বলে মনে করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্যদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান সিদ্দিকী বলেন, সোনালী ব্যাংকের একটা বদনাম ছিল যে, সোনালী ব্যাংক থেকে সহজে ঋণ বিতরণ হয় না। কিন্তু এখন এই সমস্যা নেই। করোনাকালে সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সোনালী ব্যাংক তিন হাজার কোটি টাকার বেশি ঋণ বিতরণ করেছে। এছাড়া রেমিট্যান্স যাতে সহজে দ্রুত গ্রাহকের কাছে পৌছানো যায়, সেজন্য বিকাশের সাথে চুক্তি করেছে সোনালী ব্যাংক।

Leave a Reply