ইতালিতে শ্রমিকদের বার্ষিক আয় কমেছে ৫৯৬ ইউরো

- Advertisement -

ইউরোপের অন্যান্য দেশে যেখানে প্রত্যেক বছর শ্রমিকদের গড় আয় বৃদ্ধি পাচ্ছে, সেখানে গত ১০ বছরে ইতালির প্রত্যেক শ্রমিকের আয় কমেছে গড়ে বার্ষিক ৫৯৬ ইউরো।

সম্প্রতি এ সব তথ্য উঠে এসেছে ইনস্টিটিউট অব ইতালিয়ার তথ্য ও গবেষণা পরিসংখ্যানের সার্ভে রিপোর্টে।

গত ১০ বছরে ইতালিতে প্রত্যেক শ্রমিকের বার্ষিক গড় আয় কমেছে ৫৯৬ ইউরো। কিন্তু একই সময়ে ফ্রান্স, স্পেন, অস্ট্রিয়া, নেদারল্যান্ডস ও প্রায় ইইউর অন্য সব দেশের শ্রমিকদের বার্ষিক গড় আয় বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে।

এতে অর্থনৈতিক সংকটে অনেক ইতালিয়ান শ্রমিকসহ প্রবাসী বাংলাদেশিরাও।

দেশটিতে গত ১০ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন ২ দশমিক ৩ মিলিয়ন বেকারত্বের সংখ্যা থেকে বৃদ্ধি পেয়ে তা বর্তমানে ৬ মিলিয়ন অতিক্রম করেছে। গতবছর ইতালির বেকারত্বের হার ছিল ৯ দশমিক ২ শতাংশ যা বর্তমানে ১৪ দশমিক ৫ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। সম্প্রতি এ সব তথ্য উঠে এসেছে ইনস্টিটিউট অব ইতালিয়ার তথ্য ও গবেষণা পরিসংখ্যানের সার্ভে রিপোর্টে।

বর্তমানে ইতালিতে অবস্থান করছে প্রায় ৩০ লাখ অস্থায়ী কর্মী।

এদিকে ইতালিতে হঠাৎ করেই বেড়েছে করোনা সংক্রমণ। দেশটির গণস্বাস্থ্য ও তথ্য গবেষণা প্রতিষ্ঠান জিমবে ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, গত সপ্তাহের তুলনায় চলতি সপ্তাহে প্রায় ৪৫ শতাংশ বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন, প্রায় সাড়ে ৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা রোগীর হাসপাতালে ভর্তি। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখে ৫০ জন অতিক্রম করলে নিয়মানুসারে ওই অঞ্চলটি নিম্ন হলুদ জোনে প্রবেশ করবে। এতে মানুষের চলাফেরায় নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করবে প্রশাসন।

ইতালিতে প্রায় দুই লাখ প্রবাসী বাংলাদেশির বাস। নতুন করে আক্রান্তের হার বাড়ার খবরে, চিন্তিত স্থানীয়দের পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

বর্তমানে ১২ বছরের বেশি ইতালীয় জনসংখ্যার ৮৬ শতাংশ অন্তত এক ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন। সেই সঙ্গে ৮২ শতাংশ সম্পূর্ণরূপে টিকার আওতায় এসেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৪৭ লাখের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন প্রায় ১ লাখ ৩২ হাজার।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ