ঊর্ধ্বমুখী তুলার দাম, বিপাকে ব্যবসায়ীরা

- Advertisement -

করোনার পর দেশে তৈরি পোশাকের ক্রয়াদেশ বাড়ছে। তাই এখন থেকে উপযুক্ত মূল্য ছাড়া যেন কেউ ক্রয়াদেশ না নেয়, সেই তাগিদ দিয়েছে এ খাতের দুই শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ এবং বিজিএমইএ। এদিকে বিশ্ববাজারে গত এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চে দাম উঠেছে তুলার। সংশ্লিষ্ট খাতের ব্যবসায়ীদের ভুল বোঝাবুঝি দূর করতে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ কটন অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএ)।

তৈরি পোশাকের বিশ্ববাজারে মেইড ইন বাংলাদেশের যে দাপট, তার অন্যতম কারণ সহজে মেলে সুতার মতো কাঁচামালের যোগান। তবে এই সুতা তৈরিতে দরকারি তুলার প্রায় সবটুকুই আমদানি করতে হয়। আর এই তুলাই এবার বিপাকে ফেলেছে ব্যবসায়ীদের। বিশ্ববাজারে প্রায় একমাস ধরে ঊর্ধ্বমুখী তুলার দাম।

বাংলাদেশ কটন অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএ) বলছে, তুলার ভরা মৌসুম চলছে। তারপরও গত এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ দামে বেচাকেনা হচ্ছে এই পণ্যটি, যা সংশ্লিষ্ট সব খাতেই তৈরি করেছে অস্থিতিশীলতা।

বাংলাদেশ কোটন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মুহাম্মদ আইউব জানিয়েছেন, তুলার বর্তমান যে অবস্থা তা শুধুমাত্র বাংলাদেশের জন্যই না। যাদের নিজস্ব তুলা রয়েছে, তাদেরও তুলা প্রাপ্তিতে সমস্যা হচ্ছে। তুলার মূল্য বৃদ্ধির জন্য টেক্সটাইল ও তৈরি পোশাক শিল্পে ব্যবসায়ীদের দুঃশ্চিন্তায় রয়েছে। সকলকে প্রকৃত তথ্য বিবেচনায় নিয়ে সবার জন্য এমন একটি গ্রহণযোগ্য পরিস্থিতি তৈরি করতে হবে, যাতে পোশাক খাত এবং সামগ্রিক টেক্সটাইল খাত কোনো ভুল সিদ্ধান্ত বা ভুল পদক্ষেপের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ না হয়।

এদিকে উদ্যোক্তারা বলছেন, করোনার ধাক্কা কাটিয়ে সুবাতাস বইতে শুরু করেছে তৈরি পোশাক খাতে। তবে তা কাজে লাগাতে ব্যবসায়ীদের হতে হবে কৌশলী।

ক্রয়াদেশ আছে, তা রপ্তানি করতে হবে উল্লেখ করে, বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ আজিম বলেন, এক্ষেত্রে সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।

বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেছেন, ক্রয়াদেশ কিন্তু আরও আসবে। সুযোগ কিন্তু এখনো আছে আমাদের। তবে এ সুযোগটা যদি নিতে হয় তাহলে প্রথমেই আমাদের সুতার বাজারে স্থিতিশীলতাটা নিশ্চিত করতে হবে। প্রত্যেকেই একটা সতর্ক বার্তা দেওয়া, যে আগের মত যেন তেন দামে আপনারা ক্রয়াদেশ নিবেন না।

সুতাকল মালিকরা যেন ইচ্ছেমতো দাম বৃদ্ধি না করেন, সেদিকেও সংগঠনগুলোকে নজর রাখার তাগিদ উদ্যোক্তাদের।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ