এই মুহূর্তে বাংলাদেশের সব বন্দরে থার্মাল স্ক্যানার বসানোর পরামর্শ চীনা রাষ্ট্রদূতের

অনলাইন ডেস্ক

স্মরণকালের ভয়াবহতম মানবিক বিপর্যয় কাটিয়ে চীন এখন অনেকটাই স্বস্তিতে আছে। সেখানে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রায় ৯৫ শতাংশ কমেছে বলে দাবী বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং। তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের যে মহামারি ঘটেছে, চীন তার বিরুদ্ধে জয়লাভ করার পথে। এখন চীনের বাইরে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। তাই পরশু, কাল বা আজ নয়, এই মুহূর্তে বাংলাদেশের সব বন্দরে (নৌ, স্থল, বিমান) থার্মাল স্ক্যানার বসানো জরুরি।’

আজ (৪ মার্চ) কেরানীগঞ্জের পানগাঁও জাজিরায় স্থাপিত প্রকল্প কার্যালয় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

লি জিমিং বলেন, ‘যেকোনও স্থান থেকেই করোনা ভাইরাস আক্রমণ করতে পারে। বাংলাদেশের পার্শ্ববর্তী দেশেও করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। সে কারণে বাংলাদেশও ঝুঁকিতে আছে।’

চীনা রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের পদ্মা সেতু ও সেতুতে রেল সংযোগ প্রকল্পে কর্মরত চীনা নাগরিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছে। কিন্তু তাদের ভিসা জটিলতা দেখা দিয়েছে।’

রাষ্ট্রদূত জরুরি ভিত্তিতে এসব প্রকল্পে কর্মরত চীনা নাগরিকদের ভিসা জটিলতা জরুরি সমাধানের তাগিদ দিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের পদ্মা ব্রিজ রেল লিংক প্রজেক্ট (পিবিআরএলপি) প্রকল্প পরিচালক গোলাম ফখরুদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক শামসুজ্জামান, বাংলাদেশে চীনের দূতাবাসের ইকোনমিক কাউন্সিলর লিও ঝেন হুয়া, সিআরইসি-এর পদ্মা সেতু প্রকল্প পরিচালক লিও জিয়ান হুয়াসহ অনেকে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ

Bengali Bengali English English German German Italian Italian