কক্সবাজারের সেই চেয়ারম্যানসহ আটজনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নে গরুচোর সন্দেহে মা-মেয়েসহ একই পরিবারের চারজনকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো. মতিউল ইসলাম আজ বুধবার দুপুরে চকরিয়া সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন।

ওই প্রতিবেদনে মা-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় আটজনের সম্পৃক্ততার কথা উঠে এসেছে। পরে আদালতের বিচারক রাজিব কুমার দেব হারবাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম মিরানসহ আটজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন চকরিয়া সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক। তিনি বলেন, ‘স্বতঃপ্রণোদিত মামলায় তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর আদালতের বিচারক হারবাং ইউপি চেয়ারম্যান মিরানসহ আটজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তার প্রতিবেদনে জনপ্রতিনিধি হিসেবে ইউপি চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম মিরান ও সংশ্লিষ্ট চৌকিদারদের সম্পৃক্ততার কথা বলা হয়েছে।’

অন্য আসামিরা হলেন হারবাং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম মিরানের সহযোগী নজরুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, নাছির উদ্দিন, রাজিব, কবির, গ্রামপুলিশ নুরুল আমিন ও গ্রামপুলিশ আহমদ হোসেন। এর মধ্যে নজরুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন ও নাছির উদ্দিন গ্রেপ্তার হয়ে গত ২৫ আগস্ট থেকে কারাগারে আছেন।

গত ২১ আগস্ট দুপুরে চকরিয়া উপজেলার হারবাং ইউনিয়নে গরুচোর সন্দেহে মা-মেয়েসহ একই পরিবারের চারজনকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠে উপজেলার হারবাং ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও কতিপয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনার পরের দিন শনিবার দিবাগত রাতে রশিতে বাঁধা অবস্থায় মা-মেয়ের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হলে বিষয়টি নিয়ে সর্বত্রই সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এ ঘটনায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশে কক্সবাজার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক (উপসচিব পদমর্যদার কর্মকর্তা) শ্রাবস্তী রায়কে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠনের পাশাপাশি ২৪ আগস্ট চকরিয়া সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারকের সুয়োমোটোর পর ওই বিষয়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপারকে (চকরিয়া সার্কেল) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী তদন্ত কর্মকর্তা সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মো. মতিউল ইসলাম আজ দুপুরে আদালতে তাঁর তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

লেখক

সর্বশেষ সংবাদ

হিলি বন্দরে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য শুরু

টানা ছয়দিন পূজার ছুটি কাটিয়ে আজ বুধবার সকাল থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি শুরু হয়েছে। আজ বুধবার সকালে ভারত থেকে বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাক দেশে প্রবেশের...

মহানবীর (সাঃ) ব্যঙ্গ কার্টুনের প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল শরীয়তপুর

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এঁর ব্যঙ্গ কার্টুন প্রদর্শন করার প্রতিবাদে সমমনা ইসলামী দলসমূহের বিক্ষোভে উত্তাল শরীয়তপুর। বুধবার সকাল ১০টায় শরীয়তপুর শহরে পালং উত্তর...

ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ১৬২ বছরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (সংক্ষেপে-জবি) বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার কোতোয়ালি থানার সদরঘাট এলাকায় চিত্তরঞ্জন এভিনিউতে অবস্থিত একটি স্বায়ত্তশাসিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। উনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি সময়ে বুড়িগঙ্গা নদীর তীরে জগন্নাথ রায়...

ধামইরহাটে রাসায়নিক স্প্রে করে ধান পুড়িয়ে দিল দূর্বৃত্তরা

নওগাঁর ধামইরহাটে রাসায়নিক স্প্রে করে কৃষদের ধান পুড়িয়ে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এতে জমির মালিকের সমস্ত আধাপাকা ধান বিষক্রিয়ায় বিবর্ণরুপ দেখা দিয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পৌর...
%d bloggers like this: