কল্যাণপুর খাল উদ্ধারে কাউকে ছাড় নয়: আতিক

- Advertisement -

রাজধানীর কল্যাণপুর খাল উদ্ধার করে সেখানে প্রায় ৭৩ একর এলাকাজুড়ে প্রকৃতিনির্ভর বিনোদনকেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। সাইক্লিং, বোটিং থেকে শুরু করে বিনোদনের নানা ব্যবস্থার পাশাপাশি থাকবে ইকোপার্ক।

সীমানা নির্ধারণ শেষ হলে জুনের মধ্যেই কাজ শুরু করতে চায় কর্তৃপক্ষ। তবে বাধা হতে পারেন অবৈধ দখলদাররা। সে ক্ষেত্রে খাসজমি বুঝে নিতে কাউকে ছাড় না দেওয়ার হুঁশিয়ারি উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের।

বুলু মিয়ার তিন পুরুষের ভিটা এখানেই। শৈশব থেকে যৌবন কেটেছে এ মাটিতে। সেই অথৈ পানি, মাছ শিকার কতশত স্মৃতি। কালের তলে গ্রাস হয়েছে সব। এবার আবার ফিরে পাওয়ার পালা।

ওয়াসা থেকে রাজধানীর খাল বুঝে পাওয়ার পরই তা উদ্ধারে মাঠে নেমেছে সিটি করপোরেশন। এরই মধ্যে কল্যাণপুর খালের সীমানা নির্ধারণের কাজ শুরু হয়েছে। চলছে দখলমুক্ত করে খালখননের প্রক্রিয়া। তাই তো এক্সকাভেটর মেশিনেই এখন নতুন স্বপ্ন দেখা।

কল্যাণপুর খাল ঘিরে সরকারের রয়েছে মেগা পরিকল্পনা। পুরো এলাকায় তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব ইকোপার্ক। উত্তরে গাবতলী বাসস্ট্যান্ড, পশ্চিমে বেঁড়িবাধ, পূর্বে কল্যাণপুর, দক্ষিণে রামচন্দ্রপুর খাল। পুরো ৭৩ একর থাকবে এর আওতায়। থাকছে ওয়াকওয়ে, বেইস ক্যাম্প। সাঁতার, সাইকেলিং, ফিশিংসহ নানা অ্যাকটিভিটিজ। চলার পথে চোখে পড়বে পাখি ও প্রজাপতির পার্ক। মূল ভাবনা থাকবে একটি জলনির্ভর এলাকা তৈরি।

সে ক্ষেত্রে এই মুহূর্তে চলছে সীমানা নির্ধারণ। এলাকা চূড়ান্ত হলে চলতি জুনেই কাজ শুরু করতে চায় কর্তৃপক্ষ, শেষ হতে সময় লাগবে প্রায় তিন বছর।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ