‘গণতন্ত্রের’ ছদ্মবেশে যুক্তরাষ্ট্র, ক্ষোভ ঝাড়লেন ওয়াং ই

- Advertisement -

দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোর সংগঠন আসিয়ানের এক সম্মেলনের ফাঁকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর একটি সম্পূর্ণ প্রহসন। তথাকথিত ‘গণতন্ত্রের’ ছদ্মবেশে যুক্তরাষ্ট্র চীনের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করছে। এ ক্ষেত্রে যারাই চীনকে বিরক্ত করবে তাদের বেইজিং শাস্তি দেবে।’

বুধবার (৩ জুলাই) কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেনে বেইজিংয়ের সঙ্গে খারাপ আচরণকারীদের শাস্তি দেয়ার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দেন ওয়াং।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) পেলোসির তাইওয়ান সফর প্রশ্নে দেশটি বিক্ষুব্ধ হওয়ার পর তিনি এমন প্রতিশ্রুতি দেন। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ কথা জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, ন্যান্সি পেলোসি নির্লজ্জভাবে চীনের তাইওয়ান অঞ্চলে সফরে গেছেন। এই পদক্ষেপ গুরুতরভাবে ‘এক-চীন’ নীতি লঙ্ঘন করে। এতে চীনের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন ও রাজনৈতিক উসকানি স্পষ্ট হয়েছে, যা চীনের জনগণের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ব্যাপক বিরোধিতার জন্ম দিয়েছে।

চীনের উন্নয়ন ও পুনরুজ্জীবনকে যুক্তরাষ্ট্রের খাটো করে দেখা উচিত নয় জানিয়ে ওয়াং ই বলেন, চীন তার নিজস্ব জাতীয় অবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সঠিক উন্নয়নের পথ খুঁজে পেয়েছে। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বে ১৪০ কোটি চীনা জনগণ চীনা ধাঁচের আধুনিকীকরণের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

তার মতে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূ-রাজনৈতিক খেলায় হেরফের করার কল্পনা করা উচিত নয়। শান্তি, স্থিতিশীলতা, উন্নয়ন এবং জয়জয়কার সহযোগিতা আঞ্চলিক দেশগুলোর অভিন্ন আকাঙ্ক্ষা।

প্রসঙ্গত, তাইওয়ানকে নিজেদের অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে দাবি করে চীন। অপরদিকে নিজেদের একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে দীর্ঘদিন থেকে দাবি করে আসছে তাইওয়ান।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ