গর্ভধারণের চিকিৎসা করতে এসে গৃহবধূকে দফায় দফায় ধর্ষণ

- Advertisement -

গর্ভধারণের চিকিৎসা করার নামে রাজবাড়ীর সদরের খানখানাপুর মল্লিক পাড়া এলাকায় এক গৃহবধূকে দফায় দফায় ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ৬০ বছর বয়সী আব্দুল কুদ্দুস শেখ নামে এক ভন্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা হলে পুলিশ অভিযুক্ত আব্দুল কুদ্দুস শেখকে গ্রেপ্তার করেছে।

কুদ্দুস শেখ রাজবাড়ী সদর উপজেলার খানখানাপুর মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত নছর উদ্দিন শেখের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণের শিকার গৃহবধূর কয়েক বছর আগে বিয়ে হয়েছে। কিন্তু তার কোনো সন্তান হয় না। সন্তানের আশায় নানারকম চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন। গত দুই মাস আগে কুদ্দুস শেখের কাছ থেকে ওষুধ নিয়ে তা সেবন করেন।


আরও পড়ুন>>


কুদ্দুস শেখ গৃহবধূকে তার ওষুধ নিয়মিত সেবন করতে বলেন। কুদ্দুস গত ২০ আগস্ট বিকেলে তার ভাড়া বাড়ীতে ওষুধ নিয়ে আসে। পরে তাকে কৌশলে পাশের একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। একই ভাবে গত ১ অক্টোবর বিকেলে এবং গত ৬ অক্টোবর দুপুরে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

তবে ৬ অক্টোবর দুপুরে ধর্ষণের সময় তার স্বামী হাতেনাতে কবিরাজ কুদ্দুসকে ধরে ফেলে। এ অবস্থায় কুদ্দুস তার স্বামীকে মারপিট করে পালিয়ে যায়।

রাজবাড়ী থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানিয়েছেন, রাজবাড়ী থানা ও খানখানাপুর পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে আসামি কুদ্দুস শেখকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কুদ্দুস ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করার কথা স্বীকার করেছে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ