ছেলের সঙ্গে হাতাহাতিতে বাবার মৃত্যু

- Advertisement -

ছেলে বাবাকে ঠিকমতো খেতে দেন না। সব সময় বাবাকে অপমান করে কথা বলেন। অভিমানে নিজ বসত বাড়িতেই আলাদাভাবে ঘর তুলছিলেন বাবা। কিন্তু এতেও বাধা দেন ছেলে। ওই সময় বাবা-ছেলের বাগবিতণ্ডা থেকে শুরু হয় হাতাহাতি। এক পর্যায়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বাবা। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে এমন ঘটনা ঘটেছে বগুড়ার গাবতলী উপজেলার রামেশ্বরপুর ইউপির জাইগুলি দহপাড়া গ্রামে। মৃত ব্যক্তি হলেন ৫৫ বছর বয়সী তারাজুল ইসলাম। তার ছেলের নাম টুকু মিয়া। ৩২ বছর বয়সী টুকু মিয়া পেশায় কৃষি শ্রমিক।

স্থানীয়রা জানান, ছেলের যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ হয়ে আলাদা থাকতে চান তারাজুল। এ উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বসতবাড়িতে টিন দিয়ে আলাদা একটি ঘর নির্মাণ কাজ করছিলেন তিনি। নির্মাণ কাজের একপর্যায়ে ছেলে ও টুকু তার (তারাজুল) বোন ৫৮ বছর বয়সী তারা বানু নির্মাণ কাজে বাধা দেন। ওই সময় তারা বানু-টুকুর সঙ্গে তারাজুলের বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে বাবা-ছেলের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। ওই সময় তারাজুল মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এবং সঙ্গে সঙ্গে তার মৃত্যু হয়।

গাবতলী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জামিরুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকেই মৃত তারাজুলের ছেলে ও বোন পলাতক রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ