ছোট্ট দীঘি আজ বড় হয়েছে

- Advertisement -

বাবা জানো, আমাদের একটি ময়না পাখি আছে না, সে আজকে আমার নাম ধরে ডেকেছে, লাইনটা শুনে নিশ্চয়ই সেই ছোট্ট শিশুর মায়া ভরা চেহারাটা ভেসে আসছে সবার। শিশুটাকেও সবাই চেনে। সবার প্রিয় দীঘি।

পুরো নাম প্রার্থনা ফারদিন দিঘী। সেই ছোট্ট দীঘি আজ মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) ১৮ বছরে পা দিয়েছেন। বাবা সুব্রত ও মা দোয়েল দুজনই বাংলা চলচ্চিত্রের পরিচিত দুই মুখ। তারকা পরিবারে জন্ম হলেও ছোটবেলাতেই মাকে হারিয়ে বাবার আদরেই বেড়ে উঠেছেন তিনি। আর বড় হয়েও বাবা-মায়ের মতো সিনেমার পথেই পাড়ি জমাচ্ছেন এই তারকা।

খুব ছোট থেকেই মিডিয়ার রঙ্গিন দুনিয়া দেখেছেন দীঘি। একটি বেসরকারি ফোনের বিজ্ঞাপন দিয়ে সেই ছোট্ট বেলাতেই মন কেড়েছিল সবার। সবার মুখে মুখেই তখন দীঘির নাম। এরপরই ২০০৬ সালে তাকে প্রথমবার দেখা যায় সিনেমার পর্দায়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত গল্প ‘কাবুলিওয়ালা’তে মিনি চরিত্র যেন একেবারেই তখন আদর্শ মনে হচ্ছিল দীঘির জন্য।

পর্দার মিনি তখন কাঁদিয়েছিল কোটি ভক্তকে। এরপরই ‘চাচ্চু’ সিনেমা ডিপজলের সাথেও একই জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন তিনি। দীঘির অন্যতম সেরা ছবি ছিল ‘অবুঝ শিশু।’ এ ছবিতে দীঘিকে কারাদণ্ড দেওয়া হয় কিশোর অপরাধের জন্য। এরপর আরও বেশ কিছু সিনেমাতেই ছোট্ট দীঘি তার অভিনয় দেখিয়েছিলেন।

তবে সেই ছোট্ট দীঘি এখন বেশ বড় হয়েছে। নায়িকা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম নায়িকা হিসেবে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। তবে এই সিনেমা শেষ হওয়ার আগেই দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘তুমি আছো তুমি নেই’ মুক্তি পায়। আর এই সিনেমা নিয়েই বেশ বিতর্কে পড়তে হয়েছিল তাকে। যদিও তিনি তা ভালোভাবেই কাটিয়ে উঠেছেন। কাজী হায়াতের ‘যোগ্য সন্তান’ সিনেমার কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন দীঘি।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ