ঠাকুরগাঁওয়ে ইজিবাইক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

- Advertisement -

ঠাকুরগাঁও-ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক বন্ধে হইকোর্টের নির্দেশ অয়ৌক্তিক ও গণবিরোধী আখ্যা দিয়ে তা পুন:বিবেচনার দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে রাস্তায় দাড়িয়ে বিক্ষোভ করেছে ঠাকুরগাঁওয়ের ইজিবাইক শ্রমিকরা।

শনিবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল ১১ টায় ঠাকুরগাঁও রোডে ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়নের ব্যানারে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

ঘণ্টাব্যাপী চলা এ বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ঠাকুরগাঁও জেলা ইজিবাইক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাহাবুব আলম রুবেল, সহ-সভাপতি শাহাজাহান আলী, বাদশা মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আবু আস লাবু, সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদ হোসেন ও আইন উপদেষ্টা সুকুমার রায় সহ অন্যান্য সাধারণ ইজিবাই শ্রমিকগণ।

বিক্ষোভে বক্তারা বলেন, গত ১৫ ডিসেম্বর বাঘ ইকো মটরস্ এর রিটে হাইকোর্ট ৪০ লাখ ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে। একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ব্যবসা বাড়ানোর সুযোগ করে দিতেই এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যা গণবিরোধী ও সংবিধান পরিপন্থী। বক্তারা আরও বলেন, যে যুক্তি দেখিয়ে গাড়িগুলো বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলা হচ্ছে, গাড়িগুলোতে ব্যবহৃত লেড এ্যাসিড ব্যাটারি পরিবেশ ও মানবদেহের জন্যক্ষতিকর। অথচ এ ব্যাটারি আরও অনেক পরিবহনে ব্যবহৃত হয়। এই যুক্তিতে যদি ইজিবাইক বন্ধ করা হয় তাহলে বাকি গাড়িগুলোর ব্যপারে কি সিদ্ধান্ত? বলা হচ্ছে এই গাড়িগুলো অবৈধ ভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে চার্জ দেওয়া হয়। অথচ আমরা দেখছি যদি অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয় তার জন্য দায়ী বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারী গণ। তার দায় ৪০ লাখ গরীব ইজিবাইক শ্রমিকের উপর দেওয়া কতটা যৌক্তিক? বক্তারা আরও বলেন, সরকারের অনুমোদন নিয়েই গাড়িগুলো আমদানি করা হয়েছিলো অথচ গত দশ বছরেও যারা গাড়িগুলো কিনে রাস্তায় চালাচ্ছে তাদের কে লাইসেন্স না দিয়ে অবৈধ করে রেখে দেওয়া হয়েছে। এটার দায় কার সরকারের না শ্রমিকদের প্রশ্ন রাখেন বক্তারা। পরিবেশে বক্তারা বলেন, ৪০ লাখ গাড়ির সঙ্গে প্রায় দুই কোটি মানুষের জীবন জীবিকার পথ বন্ধ করার জন্য এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে আমরা মনে করছি। আমরা অবিলম্বে হাইকোর্টের এই নির্দেশ পুন: বিবেচনা করে ব্যাটারি চালিত রিক্সা ভ্যান ও ইজিবাইককে লাইসেন্স প্রদান করার দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় বৃহৎ আনোদালনের হুশিয়া আসে বিক্ষোভ থেকে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ