ডলারের মূল্য নিয়ন্ত্রণে যৌথভাবে কাজ করছে বাংলাদেশ ব্যাংক-এনএসআই

- Advertisement -

ইচ্ছেমতো দাম হাঁকিয়ে দেশের ডলারের বাজার অস্থিতিশীল করছে গুটিকয়েক মানি এক্সচেঞ্জ। এমন ১৬৫টি প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক ও এনএসআই। পরে যৌথ অভিযানে নামে সংস্থা দুটি। ব্যবস্থা নেয়া হয় দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে।

কোভিড-পরবর্তী সময়ে বিদেশ থেকে পণ্য আমদানির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় প্রচুর ডলারের ব্যবহার শুরু হয়। এতে ডলারের খোলা বাজারে তৈরি হয় অস্থিরতা। এ সময় জ্বালানি তেল, ভোগ্যপণ্য ও জাহাজ ভাড়া বেড়ে যাওয়ায় এর অন্যতম কারণ। পরবর্তী সময়ে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধও রসদ জুগিয়েছে ডলারের অস্থিরতায়। দেশীয় ব্যবসায়ীরা ইচ্ছেমতো দাম বাড়িয়ে এ সংকট বাড়িয়ে দেন আরও।

এমন পরিস্থিতিতে ডলারের দাম নির্ধারণ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। কিন্তু কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বেঁধে দেয়া মূল্যকে গুরুত্ব না দিয়ে ব্যবসায়ীরা চলতে থাকেন ইচ্ছেমতো।

এই পরিপ্রেক্ষিতে কার্ব মার্কেটের অস্থিতিশীলতা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ ব্যাংক ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই) রাজধানীর ১৬৫টি মানি এক্সচেঞ্জ প্রতিষ্ঠানকে চিহ্নিত করে সরেজমিন পর্যবেক্ষণে মাঠে নামে। রোববার বিকেলে বাংলাদেশ ব্যাংকের ১০টি ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার ৩০টি টিম মানি এক্সচেঞ্জ প্রতিষ্ঠান সরেজমিন পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করে।

বাংলাদেশ ব্যাংক ও জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থাকে আরও নিবিড় পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে দেশের কার্ব মার্কেটে স্থিতিশীলতা ফেরাতে আহ্বান জানিয়েছেন দেশীয় আমদানি-রফতানিকারকরা।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ