দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট এলাকায় ঘন কুয়াশা ও ফেরি সল্পতায় দীর্ঘ যানজট

- Advertisement -

দেশের অন্যতম নৌরুট দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ফেরি পারের অপেক্ষায় পাঁচ শতাধিক যানবাহন।ঘন কুয়াশার কারণে সকাল ৬ থেকে ৭টা অব্দি ফেরি চলাচল বন্ধ থাকা ও ফেরির সল্পতার কারণে এমন দীর্ঘ যানজট বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১৩ই জানুয়ারি) সকাল থেকে ১ ঘন্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ফেরিঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের তিন কিলোমিটার ও গোয়ালন্দ মোড় থেকে রাজবাড়ীর দিকে আরও দুই কিলোমিটার যাত্রীবাহী পরিবহন ও পণ্যবাহী ট্রাকে দীর্ঘ যানজট দেখা যায়।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, রাতে তেমন কুয়াশা না থাকায় ফেরি চলাচলে সমস্যা হয়নি। কিন্তু সকাল থেকে কুয়াশার পরিমাণ বাড়তে থাকে এবং নদীপথ অস্পষ্ট হয়ে যায়। তাই দুর্ঘটনা এড়াতে সকাল ৬টার দিকে উভয় ঘাটেই ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। কুয়াশার ঘনত্ব কমে এলে এক ঘণ্টা পর ৭টার দিকে পুনরায় ফেরি চলাচল শুরু হয়।

কুষ্টিয়া থেকে ঢাকা মুখি পরিবহন চালক শরিফুল ইসলাম বলেন, আমি প্রতিদিন কুমারখালি থেকে সকালে ঢাকা যাই।তবে সকালে যানযট কিছুটা কম থাকে। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে যানজটের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। আমি সকালেই ঘাটে পৌঁছানোর কারণে তেমন ভোগান্তি পোহাতে হয় না, আজ ফেরি বন্ধ থাকা ও ৪টি ফেরি মেরামতের জন্য ওয়ার্কশপে নেওয়ায় দুরভোগ বৃদ্ধি পেয়েছে।

খুলনা থাকে আসা একজন পরিবহন যাত্রী বলেন, রাতে খুলনা থাকে রওনা হয়েছি। খুব সকালে ঘাট এলাকায় আসলেও আমার সামনে আরও দেড় শতাধিক গাড়ি রয়েছে। তাই কখন ফেরির নাগাল পাবো বুঝতে পারছি না।

গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় অপচনশীল পণ্যবাহী ট্রাকের ড্রাইভার বলেন, এই ঘাট মানেই দিনের পর দিন পারের অপেক্ষায় বসে থাকা। রাতে আমাদের ট্রাক পার করা হলেও কিছু ট্রাক অর্থের বিনিময়ে আগেই পার হতে পারে৷

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. শিহাব উদ্দিন জানান, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে চাহিদার তুলনায় ফেরি কম। আবার কুয়াশা বাড়লে ফেরি বন্ধ থাকে। ফেরি বন্ধ ও ফেরি স্বল্পতার কারণে যানবাহন পারাপারে কিছুটা প্রভাব পরে । বর্তমানে এই রুটে ১৫টি ফেরি চলাচল করছে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ