ধামইরহাটে বাস চাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু, আহত-৮

নওগাঁর ধামইরহাটে বাসচাপায় এক সাইকেল আরোহী বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় বাসে থাকায় ৭-৮ জন যাত্রীও গুরুত্ব আহত হন। রবিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলার ব্রাক অফিসের পূর্ব পাশ্বে এই ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় খবর জানতে পেরে হাসপাতালের প্রায় ডজন খানেক চিকিৎসক দ্রুত ইমারজেন্সীতে এসে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। থানা পুলিশ তাৎক্ষনিক ঘাতক বাসটিকে আটক করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ২২ নভেম্বর রবিবারের হাট-বাজার করতে বাই সাইকেল যোগে জাহানপুর ইউনিয়নের বিকন্দখাস গ্রামে মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুল হামিদ (৬২)ধামইরহাট-জয়পুরহাট আঞ্চলিক মহাসড়কে পিড়লডাঙ্গা এলাকার ব্রাক অফিসের নিকট রাস্তার পার্শ্ব অতিক্রম করাকালে জয়পুরহাট থেকে দ্রুত গতিতে আসা নওগাঁগামী একটি নিয়মিত যাত্রীবাহি বৃষ্টি বর্ষা নামক বাস (বগুড়া জ, ০৪-০০১০) নিয়ন্ত্রন হারিয়ে বৃদ্ধকে চাপা দিয়ে বাসটি রাস্তার গাছের সাথে ধাক্কা হয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই সাইকেল আরোহী বৃদ্ধ আব্দুল হামিদের মর্মান্তিক মৃত্যু হয় এবং বাসে থাকা যাত্রী ৭-৮ জন আহত হয়। স্থানীয়রা মৃত আব্দুল হামিদসহ আহত সকলকে হাসপাতালে নেয়।

এ খবর জানতে পেরে হাসপাতালের স্বাস্থ্য প্রশাসক ডা. স্বপন কুমার বিশ্বাসের নির্দেশে মিনিটের মধ্যেই দ্রুত চিকিৎসা সেবা দিতে ইমারজেন্সিতে সরকারি ডজন খানেক চিকিৎসক হাজির হন এবং সকলের সু-চিকিৎসা প্রদান করেন।


আরও পড়ুন


স্বাস্থ্য প্রশাসক ডা. স্বপন কুমার বিশ্বাস জানান, স্থানীয় সাংসদ মহোদয়ের প্রচেষ্টায় এতগুলো চিকিৎসক ধামইরহাটে রয়েছে, যার ফলে আজকে অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনায় জখমীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত ও তাদের শংকামুক্ত করার চেষ্টা করা হয়েছে। হাসপাতালে মৃতের ভাই সাবু (৪২), শংকরপুর গ্রামের আ. রাজ্জাকের ছেলে বিদ্যুৎ হোসেন (৩২) , নীলফামারির কিশোরগঞ্জ থানার মতিউর রহমানের মেয়ে মরজিনা আকতার, ডোমার উপজেলার মোজাম্মেলের ছেলে আ. কাদের সহ ৩ জন ভর্তি আছে, ও সাগোরিকা, মোহাম্মদ আলী, ও মমিনুল ইসলাম নূরানী সহ ৫ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে গেছেন বলেও তিনি জানান।

- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ

Bengali Bengali English English German German Italian Italian