প্রযুক্তিখাতে বশেফমুবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা নেতৃত্ব দেবে: উপাচার্য

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, মানসম্মত ও যুগোপযোগী শিক্ষার মাধ্যমে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও মানবিক গুণসম্পন্ন গ্র্যাজুয়েট হিসেবে তৈরি করা হবে। আসন্ন চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে আমাদের দেশের তরুণেরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। আমি আশা করি আমাদের শিক্ষার্থীরা দেশের প্রযুক্তিখাতে নেতৃত্ব দেবে। সেভাবেই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন্ন প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী এবং উপাচার্যের দায়িত্ব গ্রহণের দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

উপাচার্য বলেন, মানবসম্পদ উন্নয়ন এবং একটি দেশের সামগ্রিক ও অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য যুগোপযোগী উচ্চশিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানসম্মত শিক্ষার ওপর জোর দেওয়ার পাশাপাশি দেশজুড়ে নতুন নতুন বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছেন। বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এ উদ্যোগেরই ফল।

‘শিক্ষিত ও দক্ষ জনশক্তিই দেশের অর্থনৈতিক মুক্তি নিশ্চিত করতে পারে। আমরাও সেই ব্রত নিয়ে বশেফমুবিপ্রবিকে একটি গবেষণাভিত্তিক আন্তর্জাতিকমানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শিক্ষায় এই বিশ্ববিদ্যালয় হবে দেশ সেরা, অন্যদের জন্য উদহারণ।’


আরও পড়ুন


করোনাকালে শিক্ষাকার্যক্রম চালানোর বিষয়ে উপাচার্য বলেন, মহামারির কারণে বৈশ্বিক শিক্ষাব্যবস্থায় গুরুতর প্রভাব পড়েছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ও গত সাত মাস ধরে বন্ধ। এ অবস্থায় তাদের পড়াশোনার মধ্যে রাখতে আমরা অনলাইনে ক্লাস পরিচালনা করছি। এতে তাদের ক্ষতি কিছুটা কম হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

সংবাদ সম্মেলনে সমাজকর্ম বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এএইচএম মাহবুবুর রহমান, ফিশারিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রায়হানা রহমান, সেকশন অফিসার এসএম মোদাব্বির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ

Bengali Bengali English English German German Italian Italian