ফুলবাড়ীতে শিক্ষক প্রশিক্ষনে অনিয়মের অভিযোগ

মাধ্যমিক স্কুল পযার্য় কন্যা শিশুদের মধ্যে প্রজনন ও স্বাস্থ্য পুষ্টি বিষয়ে বৃদ্ধি করন লক্ষ্যে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় শিক্ষকদের নিয়ে প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আরডিআরএস বাংলাদেশ বিল্ডিং বেটার ফিউচার ফর গার্লস (বিবিএফজি)প্রজেক্টের অধীনে জেন্ডার ইক্যুয়িটি মুভমেন্ট ইন স্কুলস (জেমস)মাধ্যমে এ প্রশিক্ষন নেয়া হয়। সেখানে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা অংশগ্রহন করেন। প্রশিক্ষণার্থীদের কম মুল্যে খাদ্য সরবরাহ, নিম্নমানের উপকরণ সরবরাহসহ নানান অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন গতকাল বুধবার প্রশিক্ষনার্থীরা। তারা পাচ্ছে না মানসম্মত খাদ্য।

জানা গেছে, সিডা ও প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এর অর্থায়নে আরডিআরএস বাংলাদেশ এর বিল্ডিং বেটার ফিউচার ফর গার্লস (বিবিএফজি) প্রজেক্টের বাস্তবায়নে জেন্ডার ইক্যুয়িটি মুভমেন্ট ইন স্কুলস (জেমস) ৪ দিন ব্যাপি শিক্ষক প্রশিক্ষন শুরু হয় ৮নভেম্বর । প্রশিক্ষনে উপজেলার বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার ৪৮ জন শিক্ষক পৃথক ভাবে দুইটি ভেন্যুতে অংশ নেন। ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজ রুমে ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন ভেন্যুতে চলছে এ প্রশিক্ষন ব্যবস্থা। প্রশিক্ষনে নারী পুরুষ ২৪ জন শিক্ষক অংশগ্রহন করছেন প্রতিদিন । চার দিন করে চলে এ প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা। এ জন্য চাহিদা নেয়া হয়েছে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস থেকে। ২১৬ জন শিক্ষকদের নামের তালিকা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জমা দিয়েছেন প্রতিষ্টানের প্রধানগন । তালিকা ভুক্ত বিদ্যালয় থেকে পযার্য়ক্রমে দুইজন করে শিক্ষক এ প্রশিক্ষনে অংশ গ্রহন করছেন। এ ভাবে সাজানো হয়েছে প্রশিক্ষনটি। চলবে পযার্য় ক্রমে ডিসেম্বর পর্যন্ত।


আরও পড়ুন>>


প্রশিক্ষন নিতে আসা ফুলবাড়ী জছিমিয়া সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আমিনুল ইসলাম জানান, নাস্তা সহ দুপুরের খাবারের বরাদ্দ ২৬০ টাকা থাকলেও খাবারের মান ভাল না, সরবরাহকৃত উপকরণও নিম্নমানের। একই ভাবে জানান ,ছবিরন নেছা দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক হাওয়া পারভীন ও কুটিবাড়ী মডার্ন উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক সেলিম মিয়া বলেন প্রশিক্ষণার্থীদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে সঠিক ভাবে খাদ্য সরবরাহ করা হয়নি। তারা আমাদেরকে জানিয়েছেন নাস্তাসহ ২০০ টাকা খাবারের বরাদ্দ রয়েছে।

খাদ্য সরবরাহকারী রাধুনী হোটেল মালিক নোলা মিয়া জানান, দুপুরের খাবারের জন্য প্যাকেট প্রতি (এক)জনের জন্য ১৬৭ টাকা করে নেয়া হয়েছে। কত বরাদ্দ ছিল তা আমার জানা নেই।

ভেন্যু ভাড়ার প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম রিজু জানান, দৈনিক ১ হাজার টাকা ভাড়া দেয়া হয়, আর পরিচ্ছন্নতা বাবদ দেয়া হয় ৫০০ টাকা। ভেন্যু ভাড়া ও ডেকোরেশন বাবদ ২৫০০ টাকা বরাদ্দ থাকলেও সে বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান।


আরও পড়ুন>>


বিল্ডিং বেটার ফিউচার ফর গার্লস(বিবিএফজি) প্রজেক্টের সমন্বয়কারী ঝরনা বেগম জানান, বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে সঠিক ভাবে খাদ্য সরবরাহ করা হয়েছে। কোন সমস্যা থাকলে শিক্ষকরা জানালে তা সংশোধন করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুল ইসলাম জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষকদের প্রশিক্ষন নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে খাদ্য সরবরাহের ব্যাপারে কোন অনিয়ম হয়ে থাকলে তা জানা নেই।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

লেখক

সর্বশেষ সংবাদ

%d bloggers like this: