বগুড়ায় ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেনের পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু

করোনা মহামারির কারণে প্রতিবেশী দেশ ভারত তরল অক্সিজেন রফতানি বন্ধ করে দেওয়ায় অক্সিজেন সংকটের আশঙ্কার মধ্যে বগুড়ায় আশার আলো দেখাচ্ছে বেসরকারিভাবে গড়ে ওঠা ইন্ডাস্ট্রিয়াল ‘নর্থ বেঙ্গল অক্সিজেন প্লান্ট’। বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার ডোমনপুকুর এলাকায় ‘নর্থ বেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন প্লান্ট’ নির্মাণ কাজ শেষ করে সেখানে পরীক্ষামূলকভাবে অক্সিজেন উৎপাদন শুরু হয়েছে।

ব্যক্তি উদ্যোগে যুবক নূরুজ্জামান এই প্লান্ট নির্মাণ করেছেন। সরকারের অনুমোদন পেলে এই প্লান্ট থেকেই পাওয়া যাবে মেডিকেল অক্সিজেনও, যা উত্তরাঞ্চলের সরকারি-বেসরকরি হাসপাতালে সরবরাহের মাধ্যমে করোনাসহ শ্বাসকষ্টের রোগীদের জীবন বাঁচাতে ভূমিকা রাখবে। সেই সঙ্গে দূর হবে অক্সিজেন সংকট।

জানা যায়, গত বছর আগস্টের মাঝামাঝি শাজাহানপুর উপজেলা সদরের ডোমনপুকুর এলাকায় ‘নর্থ বেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন প্লান্ট’ নির্মাণ কাজ শুরু হয় এবং চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি প্লান্টের নির্মাণ শেষ হয়। পরে ১ এপ্রিল থেকে শুরু হয় ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেনের পরীক্ষামূলক উৎপাদন। এখানে দৈনিক ২ হাজার ৪৫০ ঘন মিটার ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন উৎপাদন করা সম্ভব। উৎপাদিত অক্সিজেন শিল্পক্ষেত্রে ব্যবহার হচ্ছে। ইতিমধ্যে সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, নাটোর, রাজশাহী, নওগাঁ, রংপুর, দিনাজপুর, নীলফামারী, গাইবান্ধা, যাশোর ও কুষ্টিয়া জেলার ব্যবসায়ীরা শাজাহানপুর থেকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন কেনা শুরু করেছেন।


আরও পড়ুন>>


ব্যবসায়ীরা জানান, ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন নিতে হতো চট্টগ্রাম থেকে। বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলায় নতুন প্লান্ট থেকে অক্সিজেন নিলে খরচ ও সময় কম লাগছে। করোনা মহামারির কারণে ইতিমধ্যেই ভারত অক্সিজেন রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে। শাজাহানপুরে নিজস্ব প্লান্টে অক্সিজেন উৎপাদন হওয়ায় এই সরবরাহ বন্ধ হওয়ার ঝুঁকি বর্তমানে কম।

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার নর্থ বেঙ্গল অক্সিজেন প্লান্টের জেলারেল ম্যানেজার ওমর ফারুক জানিয়েছেন, তার প্লান্টে পরীক্ষামূলকভাবে ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন উৎপাদন চলছে। সেই সাথে বিশেষ প্রক্রিয়ায় জীবাণুমুক্ত সিলিন্ডারে স্বল্প পরিসরে পরীক্ষামূলকভাবে মেডিকেল অক্সিজেনও উৎপাদন করা হচ্ছে।

প্লান্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাজাহানপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নূরুজ্জামান জানিয়েছেন, ব্যবসার পাশাপাশি মানব সেবার উদ্দেশ্যে তিনি অক্সিজেন প্লান্ট নির্মাণ করেছেন। পরিবেশ অধিদপ্তর, ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরের অনুমোদন চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগের উপ-পরিচালক আখতারুজ্জামান জানিয়েছেন, ‘নর্থ বেঙ্গল অক্সিজেন প্লান্ট কর্তৃপক্ষকে আবেদন পরবর্তী প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে। কাগজপত্র পাওয়া গেলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ

Bengali Bengali English English German German Italian Italian
%d bloggers like this: