বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে কটূক্তি, পৌর মেয়রের অডিও ভাইরাল

- Advertisement -

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি করায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে রাজশাহীর কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে। সম্প্রতি তার দেওয়া বক্তব্যের অডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। নৌকা প্রতীক নিয়ে দু’বার মেয়র নির্বাচিত হলেও তার এমন বক্তব্যে ক্ষুব্ধ দলের নেতাকর্মীরা।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন মেয়রের পর এবার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটুক্তি করে সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী।

এক ঘণ্টা ৪ মিনিটের একটি অডিও রেকর্ডে মেয়র আব্বাস বলেন, ইসলামের দৃষ্টিতে পাপ তাই সিটি গেটে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন করবেন না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অডিও রেকর্ডটি ভাইরাল হলে ক্ষোভে ফুঁসে উঠে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

অডিওতে আব্বাস আলীকে বলতে শোনা যায়, ‘যে ম্যুরাল দিছে বঙ্গবন্ধুর। এটা ইসলামি শরিয়ত অনুপাতে (অনুসারে) সঠিক নয়। এ জন্য আমি ওটা থুব (রাখব) না।’

এই অডিও রেকর্ডে জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ কামারুজ্জামানের সন্তান আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে উদ্দেশ্য করে গালমন্দ করেন আব্বাস।

জাতির পিতাকে নিয়ে এমন বেফাঁস মন্তব্য করায় তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান জেলার শীর্ষ নেতা।

রাজশাহী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা বলেন, বিষয়টি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল। কথাটি বলেছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নিয়ে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কটূক্তি করে কেউ রক্ষা পাননি। এই তথ্য-প্রমাণসহ বিচার-বিশ্লেষণ করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যাপারে কথা বলতে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও মেয়র আব্বাস ফোন রিসিভ করেননি। পরে কাটাখালি পৌরসভা ও তার বাড়িতে গিয়েও হদিস মিলেনি তার।

জাতীয় পার্টি থেকে ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগে যোগদানের পর ২০১৫ সালে প্রথম ও ২০২০ সালে দ্বিতীয়বারের মতো নৌকা প্রতীক নিয়ে পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন আব্বাস আলী। বর্তমানে তিনি কাটাখালি পৌরসভা আওয়ামী লীগের আহ্বায়কের দ্বায়িত্বে রয়েছেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ