বলিউড ছেড়ে বেকারির ব্যবসায় সফল

- Advertisement -

সান্দালি সিনহা বলিউডে শুরু করেছিলেন ‘তুম বিন সিনেমা’ দিয়ে। এরপর রাতারাতি পরিচিতিও পান। তবে এরপর তার আর কোনো সিনেমা সফলতার মুখ দেখনি। একের পর এক ফ্লপ সিনেমা যুক্ত হয় তার ঝুলিতে।

প্রথম সিনেমা ‘তুম বিন’ মুক্তি পায় ২০০১ সালে। সেই সিনেমায় বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েও যিনি রুপালি জগৎ থেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন নিজেকে। যাকে দেখার জন্য ভক্তরা মুখিয়ে থাকলেও তিনি মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন বলিউড থেকে।

‘তুম বিন’ সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ পাওয়ার আগে সোনু নিগমের প্রথম গানের অ্যালবাম ‘দিওয়ানা’র মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছিলেন সন্দলি। মিউজিক ভিডিওটি নির্মাণ করেছিলেন অনুভব সিনহা। তিনিই সান্দালিকে সুযোগ করে দেন সিনেমায়। তার নির্মিত ‘তুম বিন’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে পথচলা শুরু করেন অভিনেত্রী।

২০০৫ সালে শেষ সিনেমা করেন সান্দালি। সেই সিনেমা হিট না হওয়ায় অভিনয় থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। ওই বছরই বিয়ে করেন এক ব্যবসায়ীকে। নাম কিরণ সালাসকর।

এর পর অনেকেই ভুলতে বসেছিলে সান্দালিকে। মনে পড়িয়ে দেন তিনি নিজেই। ‘তুম বিন’ সিনেমার সিক্যুয়েলে অতিথি শিল্পী হিসেবে হাজির হন তিনি। তবে একই সঙ্গে জানিয়ে দেন অভিনয়ে ফেরার ইচ্ছে নেই তার।

ব্যবসায়ী স্বামীর বেকারির ব্যবসা কাঁধে তুলে নিয়েছেন। মন দিয়েছেন নতুন কাজে। ভারতের সবচেয়ে বড় বেকারি ‘কান্ট্রি অব অরিজিন’। সান্দালি তার মালকিন। এ ছাড়া মুম্বাইয়ে একটি স্পাও রয়েছে তার।

বড় হয়ে চিকিৎসক হওয়ার স্বপন ছিল সান্দালির। কিন্তু সেই ইচ্ছে বদলে যায় কলেজে পড়ার সময়। শখে দু-একবার হেঁটেছিলেন র‌্যাম্পে। তাতেই মডেলিংয়ে উৎসাহী হন। সান্দালি তখন দিল্লির জেসাস অ্যান্ড মেরি কলেজের ছাত্রী। পড়াশোনা শেষ করে কিশোর নমিত কাপুরের অভিনয়ের স্কুলে ভর্তি হয়ে যান।

সিনেমায় অসফল হলেও ব্যবসায়ে দারুণ সফল এই অভিনেত্রী। তবে সেটা নিয়ে হাঁকডাক করেন না সান্দালি। এমনকি নিজের সোশ্যাল অ্যাকাউন্টগুলো পর্যন্ত প্রাইভেসি দিয়ে রাখেন। অর্থাৎ মিডিয়ার ঝলমলে দুনিয়ার বাইরে একেবারে একান্ত জীবনযাপন করেন তিনি।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ