বাধা সত্ত্বেও এগিয়ে যাচ্ছেন ঠাকুরগাঁওয়ের নারী উদ্যোক্তারা

- Advertisement -

২০২০ সালের মে মাসে জেলার নারীদের সমন্বয়ে ঠাকুরগাঁও অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবারের যাত্রা শুরুর পর বাঁধা বিপত্তি আসলেও ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে উদ্যোক্তাদের সংখ্যা। করোনায় ঘরবন্দি মানুষ অনলাইনে কেনা বেচায় আগ্রহী হয়ে উঠে।

নানা রকম খাবার পোশাকসহ বিভিন্ন পণ্যের চাহিদায় বাড়তে থাকে উদ্যোক্তার সংখ্যা। গ্রুপটিতে যার বর্তমান সংখ্যা ৬৫ হাজার। বাড়িতে বসে তাদের হাতের তৈরি হরেক রকম মুখরোচক খাবার,কুশিপণ্য ওয়ালমেট, বিভিন্ন ডিজাইনের পোশাকসহ নানা রকম পণ্য বিক্রির প্রসার ঘটেছে।

তবে এবার সরাসরি পণ্য ক্রয়ের সুযোগ ও পরিচিতির লক্ষ্যে ঠাকুরগাঁও অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবারের আয়োজনে দুদিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘অনলাইন পণ্য মেলা’। জেলার নারীদের এমন ব্যতিক্রম উদ্যোগে মুখরিত হয়ে উঠে মেলা প্রাঙ্গণ। পণ্য সামগ্রী ক্রয়ে ছুটে আসছেন ক্রেতা বিক্রেতা ও দর্শনার্থীরা। উদ্যোক্তাদের এ আয়োজনে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে যুক্ত আছে সময় মিডিয়া লিমিটেড।

২০২০ সালে তাদের যাত্রা সহজ না হলেও আজ তারা এই প্লাটফর্মে কাজের পরিধি লাভ করেছেন। ব্যবসায় প্রসার ঘটেছে। পণ্য বিক্রি করে স্বাবলম্বী হতে শুরু করেছেন পরিবার।

মেলার আয়োজনকে আরো বিশেষ ভূমিকায় এগিয়ে যাচ্ছেন তারা। ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম বারের মতো নারীদের ব্যতিক্রমী এম উদ্যোগ জেলার মানুষকে প্রানবন্ত করেছে। অনলাইনে পণ্য ক্রয়ে ভয় কাটছে ক্রেতাদের। স্পিং গার্ডেন চাইনিস ও লাভলী বিউটি পার্লারের সহযোগিতায় শহরের জেলা পরিষদ শিশুপার্ক প্রাঙ্গনে পহেলা জুলাই থেকে দুদিন ব্যাপী পণ্য মেলার আয়োজন মানুষের আস্থা তৈরি হয়েছে।

মেলায় পসরা সাজানো স্টল থেকে পছন্দের পণ্য সামগ্রী ক্রয়ে ছুটে এসেছেন দর্শনার্থী ও ক্রেতা বিক্রেতারা। এ ধরনের আয়োজনে উদ্যোক্তাদের পথকে আরো সহজ করবে বলে মত সবার। ধীরে ধীরে এখন বড় পরিসরে ঠাকুরগাঁও অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবার বলে জানিয়ে সহযোগিতা চান ঠাকুরগাঁও অনলাইন উদ্যোক্তা পরিবারের এডমিন সানজিদা শারমিন সেতু।

তিনি জানান, শুরুটা কঠিন সময় পার হলেও বর্তমানে জেলা ও জেলার বাইরের নারীরা গ্রুপে যুক্ত থেকে পণ্য বিক্রি করছেন। মূলত সবার সঙ্গে সবার পরিচিতি ও ক্রেতাদের আস্তা বাড়াতে মেলাটির আয়োজন। সকলের সহযোগিতা পেলে ব্যবসা প্রসার ঘটানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

আর মেলা উদ্বোধন করতে এসে জেলা পরিষদ প্রশাসক মুহাম্মদ সাদেক কুরাইশী ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অরুনাংশু দত্ত টিটোসহ জনপ্রতিনিধিরা জানান, নারীরা আজ সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছে। তাদের এমন ব্যতিক্রমী আয়োজন অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তাদের ভাল কার্যক্রমে সব ধরনের সহযোগী প্রদানের আশ্বাস দেন জনপ্রতিনিধিরা।

অনলাইনের পাশাপাশি ব্যবসায় প্রসার ঘটাতে এক জুলাই থেকে শুরু হওয়া এ মেলায় ত্রিশটি স্টল বসেছে। আর প্রতিটি স্টলে হাতের তৈরি নানা ধরনের পণ্য বিক্রি করছেন বিভিন্ন জেলার নারী।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ