বাস ভাড়া কমানোর দাবিতে শাহবাগ অবরোধ করে বিক্ষোভ

- Advertisement -

জ্বালানি তেলের দাম এবং বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগ অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে বাম সংগঠনগুলো। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন তারা। এতে প্রায় ৪০ মিনিটের জন্য শাহবাগ মোড়ের যানচলাচল বন্ধ থাকে।

বিক্ষোভ থেকে জ্বালানি তেলের দাম ও বাস ভাড়া কমানোর দাবি জানান সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ। এসময় লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণার হুশিয়ারিও দেন তারা।

এর আগে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন এলাকায় জড়ো হন ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্র ফেডারেশন (গণসংহতি), ছাত্র ফেডারেশন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট(মার্ক্সবাদী), গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদসহ আটটি বাম ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে তাঁরা মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ে আসেন। তাদের অবরোধের কারণে শাহবাগ থেকে পল্টন, সায়েন্স ল্যাব, বাংলা মোটর ও টিএসসি অভিমুখী সড়কে যান চলাচল প্রায় ৪০ মিনিট বন্ধ থাকে। পরে পুলিশের অনুরোধে অবস্থান কর্মসূচি শেষ করলে তা সচল হয়।

শাহবাগে অবস্থানকালে ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির প্রভাব দেশের সকল কিছুর উপর পড়ছে। ভাড়া বৃদ্ধির চক্রান্ত সারা দেশের মানুষকে ভুক্তভোগী করছে। এই জ্বালানি তেল এবং বাস ভাড়া বৃদ্ধি চক্রান্তের বিরুদ্ধে কৃষক-শ্রমিক, ছাত্র-জনতা সবাইকে এক জায়গায় দাঁড়াতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত এই সরকার এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসবে আমাদের আন্দোলন চলবে।

ছাত্র ইউনিয়নের সহ-সভাপতি অনিক রায় বলেন, জনগণের উপর দিয়ে ছড়ি ঘুরিয়ে এই সরকার টিকে আছে। জ্বালানি তেলসহ সব কিছুর উপর দাম বাড়িয়ে জনগণের নাভিশ্বাস উঠে গেছে। এর সঙ্গে বৃদ্ধি পেয়েছে বাস ভাড়াও। এভাবে আর চলতে পারে না। জ্বালানি তেলের দাম ও বাস ভাড়া কমানোর দাবিতে আমাদের এই অবস্থান কর্মসূচি।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিলের সভাপতি আরিফ মঈনুদ্দিন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি শুভাশীষ চাকমা, ছাত্র ফেডারেশন সভাপতি (গণসংহতি) মিতু সরকার, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবীর প্রমুখ।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ