বিজেপির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ঘোষণা, কে এই দ্রোপদী মুর্মু?

- Advertisement -

ভারতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিজেপির নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন এনডিএ জোটের প্রার্থী হচ্ছেন ওড়িশার সাবেক মন্ত্রী দ্রৌপদী মুর্মু। ঝাড়খণ্ডের রাজ্যপাল পদেও ছিলেন তিনি। নির্বাচিত হলে দ্রোপদী হবেন ভারতের প্রথম আদিবাসী ও নারী রাষ্ট্রপতি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, মঙ্গলবার (২১ জুন) বিজেপির বৈঠকের পরে দলের সভাপতি জেপি নাড্ডা এনডিএ জোটের প্রার্থী হিসেবে দ্রৌপদী মুর্মুর নাম ঘোষণা করেন।

এনডিএ শরিকদের সঙ্গে আলোচনায় সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ২০ জনের নাম এসেছিল। শেষ পর্যন্ত সর্বসম্মতভাবে দ্রৌপদী মুর্মুর নাম চূড়ান্ত করা হয়। বিরোধী জোটের রাষ্ট্রপতি প্রার্থী যশবন্ত সিনহার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি।

কে এই দ্রোপদী মুর্মু

ভারতের স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুসারে, ১৯৫৮ সালের ২০ জুন ওড়িশার একটি আদিবাসী পরিবারে জন্ম দ্রৌপদীর। এরপর রমা দেবী মহিলা কলেজ থেকে স্নাতক পাস করেন তিনি। চাকরিজীবন শুরু ওড়িশার সচিবালয় থেকে। তবে পুরোদস্তুর রাজনীতি জীবন শুরু ১৯৯৭ সালে। ওই বছরই পৌরসভা নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রথমবারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হন।

এর তিন বছর পর রাজ্য বিধানসভায় নির্বাচিত হন ওড়িশার ময়ূরগঞ্জ জেলার বাসিন্দা দ্রৌপদী মুর্মু। রায়রাংপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে দুই দফায় বিজেপির বিধায়ক হয়েছেন তিনি।

২০০৭ সালে ওড়িশা বিধানসভায় সেরা বিধায়ক হিসেবে ‘নীলকান্ত’ পুরস্কার জেতেন দ্রৌপদী। ২০১৫ সালে ঝড়খণ্ডের রাজ্যপাল হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০০২ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ময়ূরগঞ্জের বিজেপি জেলা সভাপতি ছিলেন তিনি।

যশবন্ত সিনহার বিপক্ষে ভোটে জিতলে আগামী ২৫ জুলাই ভারতের রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেবেন দ্রৌপদী মুর্মু। হবেন দেশটির দ্বিতীয় নারী রাষ্ট্রপতি।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ