বিবর্তনবাদের জনক ডারউইনের জন্মদিন আজ

কেমন করে হলো প্রাণের উদ্ভব? কোথা থেকে মানুষ এলো? সৃষ্টিতত্ত্ব নিয়ে ভাবনার যখন কুলকিনারা মিলছিলো না, উনিশ শতকে বিবর্তন তত্ত্ব ব্যাখ্যা করে আলোড়ন সৃষ্টি করেন ব্রিটিশ বিজ্ঞানী চার্লস ডারউইন। ১৮০৯ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি ইংল্যান্ডের এক ধনী ও প্রভাবশালী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। আর ১৯৯৩ সাল থেকে ডারউইনের জন্মদিনকে ডারউইন দিবস হিসেবে উদযাপন করে আসছে পৃথিবীবাসী।

পৃথিবীতে সবমিলিয়ে মোট ১ লক্ষ কোটি প্রজাতির বসবাস। এসব প্রজাতির মধ্যে আছে কোনও মিল আছে কী না তা নিয়ে চিন্তার যেন কোনও অন্ত নেই। ডারউইনই প্রথম জোর দিয়ে প্রমাণ করেন পৃথিবীর সমস্ত প্রাণী প্রজাতিই একই পূর্বপুরুষের কাছ থেকে এসেছে এবং সময়ের সঙ্গে বিবর্তিত হয়েছে।

১৮৫৯ সালে প্রকাশিত অন দ্য অরিজিন অব স্পেসিস নামক বইতে প্রাকৃতিক নির্বাচন মতবাদ সংক্রান্ত যাবতীয় গবেষণাকে বিস্তৃতভাবে ব্যাখ্যা করেছেন।


আরও পড়ুন>>


শুরুটা মসৃন ছিল না খ্রিষ্টধর্মের অনুসারী ডারউইনের পক্ষে। ১৮৩১ সালে ৫ বছরের জন্য সমুদ্র ভ্রমণে বের হন ডারউইন। এই ভ্রমণে তিনি বিভিন্ন প্রজাতির জীববৈচিত্র্য সম্পর্কে প্রচন্ড প্রাভাবিত হন, বিশেষ করে গালাপাগোস দ্বীপের ফিঞ্চ পাখির ঠোঁট দেখে।

ডারউইন তার বিবর্তনবাদ তত্ত্বকে আরো উন্নতভাবে প্রকাশ করার জন্য ১৮৬৮ সালে প্রকাশ করেন আরেকটি বই (Variation of Animals and Plant under Domestication)। সেখানে তিনি দাবি করেন, মানুষ এবং বাঁদর উভয়েই কোনো এক প্রাগৈতিহাসিক জীব থেকে বিবর্তিত হয়েছে।

- Advertisement -

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ

Bengali Bengali English English German German Italian Italian
%d bloggers like this: