মিয়ানমার থেকে সরাসরি নিয়ে আসতেন ইয়াবা

0
22
মিয়ানমার থেকে সরাসরি নিয়ে আসতেন ইয়াবা
মিয়ানমার থেকে সরাসরি নিয়ে আসতেন ইয়াবা

চট্টগ্রামে পুলিশের হাতে গ্রেফতার ইয়াবা ব্যবসায়ী মো. ফোরকান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দিতে ফোরকান মিয়ানমার থেকে সরাসরি কক্সবাজারের টেকনাফ ও চট্টগ্রামের আনোয়ারা হয়ে সমুদ্রপথে ইয়াবা নিয়ে আসতেন বলে জানিয়েছেন।

বুধবার মহানগর হাকিম হোসেন মোহাম্মদ রেজার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন তিনি। এর আগে, শুক্রবার নগরীর চান্দগাঁও থানার নিউ চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বাকলিয়া থানার ওসি মো. নেজাম উদ্দিন বলেন, চার দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হলে সেখানে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন ফোরকান। জবানবন্দিতে তিনি মিয়ানমার থেকে সরাসরি কক্সবাজারের টেকনাফ ও চট্টগ্রামের আনোয়ারা হয়ে সমুদ্রপথে ইয়াবা নিয়ে আসার কথা জানিয়েছেন।

গত ৫ নভেম্বর টেকনাফ থেকে ঢাকায় নিয়ে ইয়াবা বিক্রির পর ঢাকা থেকে অস্ত্র সংগ্রহ করে টেকনাফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফিরে যাওয়ার পথে নগরীর বাকলিয়া থেকে অস্ত্রসহ আব্দুর রাজ্জাক নামে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার দেয়া তথ্যে টেকনাফের হ্নীলা লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে মো. কামাল নামে আরো একজনকে গ্রেফতার করা হয়।



গ্রেফতারের পর রাজ্জাক ও কামালকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিলে ফোরকানের বিষয়ে তথ্য পায় পুলিশ। পরে শুক্রবার নিউ চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে, ফোরকানকে গ্রেফতারের পর তার দেয়া তথ্যে প্রথমে মোবারক হোসেন ও মো. রাসেলকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে ফোরকানের নিউ চাঁন্দগাও আবাসিকের বাসায় অভিযান চালিয়ে নগদ ৮ লাখ ৮৩ হাজার ৬২২ টাকা, ২৩ হাজার ২০০ ইয়াবা ও বিভিন্ন ব্যাংকের ১২টি চেক বই উদ্ধার এবং তার স্ত্রী শামীম আরা শমীকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় পৃথক মামলা দায়ের হয়।

শনিবার ফোরকান, তার স্ত্রী শামীম আরা শমী, মোবারক হোসেন ও মো. রাসেলকে চার দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। রিমান্ডে তাদের দেয়া তথ্যে মো. তাহের, মো. আলী জোহর ও আসমা আক্তার নামে আরো তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়।

Leave a Reply