রাঙ্গামাটিতে শীতে বাড়ছে ঠান্ডাজনিত শিশু রোগীর সংখ্যা

- Advertisement -

রাঙ্গামাটিতে শীতের সঙ্গে বাড়ছে ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ। আক্রান্তদের বেশিরভাগই শিশু। শয্যার দ্বিগুণেরও বেশি রোগীকে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

রাঙ্গামাটিতে হঠাৎ করেই শীতের তীব্রতায় হাসপাতালে বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগীর সংখ্যা। বিশেষ করে শিশুরাই এতে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। জ্বর, সর্দি, কাশি, ডায়রিয়া, নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে এসব শিশু হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। ১০০ শয্যার রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রায় এক মাস ধরে গড়ে প্রতিদিন দেড়শো রোগীকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। আর বাড়তি রোগীর চাপ সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে। জেনারেল ও শিশু ওয়ার্ডে অতিরিক্ত রোগীর কারণে দেখা দিয়েছে আসন সংকট। ২০ শয্যার বিপরীতে শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি আছে ৫০টি শিশু। অতিরিক্ত রোগীর কারণে মেঝেতে পাতা হয়েছে অস্থায়ী বেড। এছাড়া বহির্বিভাগেও বেড়েছে রোগীর চাপ।

রোগীর স্বজনরা জানান, ২/৩ দিন থেকে নিউমোনিয়ার কারণে হাসপাতালে ভর্তি। অন্য একজন বলেন, ঠান্ডার কারণে শ্বাস নিতে পারছিল না। বাধ্য হয়েই হাসপাতালে ভর্তি করেছি।

রাঙ্গামাটি জেনালের হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শওকত আকবরের দাবি, সীমিত সামর্থ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ সেবা দেওয়া হচ্ছে। এদিকে ১০০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে প্রায় এক মাস ধরে গড়ে প্রতিদিন দেড়শো রোগীকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

এ অবস্থায় শিশুদের বিশেষ যত্ন নেওয়ার পরামর্শ শিশু বিশেষজ্ঞের। এ বিষয়ে রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিষেশজ্ঞ ডা. এম এ হাই জানান, যেসব খাবার খাওয়ার পর বাচ্চাদের হাঁচিকাশি বাড়ে, এলার্জি আছে এমন খাবার থেকে তাদের দূরে রাখা উচিত।

গেল এক সপ্তাহে জেলার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে ৮০০ রোগী।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ