রায়পুরে ডাঃবাহারুল আলমের প্রচেষ্টায় ১৮ বছর চালু হলো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক্স-রে বিভাগ

- Advertisement -

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রের এক্স-রে মেশিনটি অবশেষে সচল করা হয়েছে।রেডিওলজিষ্ট নিয়োগ না দেয়ায় অভিজ্ঞ টেকনিশিয়ান দিয়ে চলতি মাসেই চালু করা হয় এক্স – রে বিভাগ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ বাহারুল আলম জানান, দীর্ঘ ১৮বছর ধরে রেডিওলজিষ্ট না থাকায় এক্স-রে মেশিনটি নষ্ট হয়ে পড়েছিল। রোগীদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে ত্রুটি সরিয়ে এটি চালু করা হয়।

স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসক ইয়াসিন মাহমুদ জানান, এখানে প্রতিদিন গড়ে ৩০০-৪০০ রোগী অন্তঃবিভাগ এবং বর্হিবিভাগে চিকিৎসাসেবা নিয়ে থাকেন।

চিকিৎসাসেবা নিতে আসা চরবংশী এলাকার শরিফুল ইসলাম বলেন, ১০০ টাকা দিয়ে পায়ের এক্স-রে করিয়েছি। এতে আমার অর্থের পাশাপাশি সময়ও সাশ্রয় হয়েছে।

কেরোয়া গ্রাম থেকে আসা আনোয়ারা বেগম বলেন, আমরা গরিব মানুষ। বাইরে থেকে বেশি টাকা দিয়ে এক্স-রে করতে পারি না। তাই এখান থেকে অল্প টাকায় বুকের এক্স-রে করতে পেরে স্বস্তি পেলাম।

রায়পুর স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. বাহারুল আলম বলেন, রোগীর কথা চিন্তা করে বিকল্পভাবে এক্স-রে মেশিনটি চালু করা হয়েছে। ফলে হাসপাতালের সব রোগীরাই অল্প খরচে এক্সে-রে করতে পারছেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ