শরীয়তপুরে তুলাসার ইউনিয়নে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের উপর হামলা, আহত ১০

- Advertisement -

শরীয়তপুর সদর উপজেলার তুলাসার ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ জামাল হোসেন ফকিরসহ তার কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলা করেছে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম ও তার সমর্থকরা।

সোমবার সকাল ১১টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে এ হামলা করা হয়েছে বলে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ জামাল হোসেন ও তার সমর্থকরা অভিযোগ করেছেন।

হামলায় উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও বোমার আঘাতে জামাল হোসেন ফকিরসহ তার সমর্থক মোঃ হান্নান ফকির, আলামিন বেপারী, রিপন ফকিরসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত পুলিশী নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, ১১নভেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে জামাল হোসেন ফকির আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করেন। ২৩ ডিসেম্বর নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জামাল হোসেন ফকির শপথ গ্রহণ করেন। ১৮জানুয়ারি নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জামাল হোসেন ফকির ইউনিয়ন পরিষদে দায়িত্ব গ্রহণের উদ্দেশ্যে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন। এ নিয়ে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদ ফকির এবং তার সমর্থকরা বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী জামাল হোসেন ফকিরের সমর্থকদের উপর বিভিন্ন সময় হামলা চালিয়ে আসছে।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান জামাল হোসেন ফকির বলেন, ২৩ ডিসেম্বর শপথ গ্রহণ করার পর ১৮ জানুয়ারি ইউনিয়ন পরিষদে মিলাদের আয়োজন করি। মিলাদে সকল অনুষ্ঠান সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য সকালে ইউনিয়ন পরিষদে আসলে হঠাৎ করে আমার এবং আমার সাথে থাকা লোকজনের উপর বোমা হামলা করে। হামলায় আমার অনেক কর্মী-সমর্থকরা আহত হয়। আমি কালকের অনুষ্ঠান নিয়ে ভয়ের মধ্যে আছি। আমি এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম ফকির বলেন, নির্বাচনের পর থেকেই আমি ও আমার কর্মী-সমর্থকরা বাজারে গেলে তাদের উপর জেলা বিএনপি’র এক নেতা মারধর করে। আজকে সকালে বাজারে আমার ক্লাবে গেলে আমাদের উপর হামলা চালায় তারা। আমার ক্লাবটিও ভাংচুর করা হয়েছে। আমি এসব নির্যাতনের প্রতিকার চাই।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ