‘শার্লিন ও পুনম নিজেরাই অ্যাডাল্ট ভিডিও বানিয়ে বিক্রি করেছে’

- Advertisement -

বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা জেল খেটেছেন পর্নোগ্রাফি মামলায়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, পর্নো-অ্যাডাল্ট ভিডিও বানিয়ে সেটা বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে প্রচার করতেন। এর জন্য প্রায় দুই মাস কারাগারে ছিলেন তিনি।

গত ২১ সেপ্টেম্বর জামিনে মুক্তি পান রাজ কুন্দ্রা। সম্প্রতি তিনি পুনরায় আগাম জামিনের আবেদন করেছেন। সেই আবেদনেই উঠে এলো বিস্ফোরক তথ্য। রাজ দাবি করেছেন, পুনম পাণ্ডে ও শার্লিন চোপড়া স্বেচ্ছায় অ্যাডাল্ট ভিডিও বানিয়েছিলেন। এতে তার কোনো জোরাজুরি ছিল না।

বলে রাখা প্রয়োজন, শার্লিন ও পুনম বলিউডে অ্যাডাল্ট কনটেন্টের জন্য পরিচিত। সোশ্যাল মিডিয়া হোক কিংবা কোনো সিরিজ, তাদেরকে দেখা যায় খোলামেলা রূপেই। রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে তারাই অভিযোগ তুলেছিলেন। বলেছিলেন, রাজের টিম জোর করে তাদের দ্বারা নগ্ন ভিডিও তৈরি করেছিল।

তবে এবার উল্টো অভিযোগ করলেন রাজ কুন্দ্রা। আগাম জামিনের আবেদনে তিনি দাবি করেছেন, শার্লিন ও পুনমের অ্যাডাল্ট ভিডিও তৈরিতে তার কোনো ভূমিকা ছিল না। নিজেদের উপার্জনের জন্য সেই ভিডিও স্বেচ্ছায় বানিয়েছেন তারা। রাজ এই ভিডিও বানাননি কিংবা অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়েও দেননি।

একই প্রসঙ্গে রাজের আইনজীবীর দাবি, তিনি অ্যাপের দায়িত্বে থাকাকালীন পুনমের এরকম কোনো ভিডিও রিলিজ হয়নি। এমনকি রাজের তৈরি ভিডিওতে কোনোরকম যৌন দৃশ্যও নেই।

রাজের এসব দাবির বিপরীতে অবশ্য এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি পুনম ও শার্লিন।

উল্লেখ্য, গত ১৯ জুলাই পর্নো বানানো এবং বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে তা ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করে মুম্বাই পুলিশ। ‘হটশটস’ ও ‘বলিফেম’ নামের দুটি অ্যাপ তৈরি করে সেগুলোতে পর্নোভিডিও প্রচার করতেন তিনি। ২১ সেপ্টেম্বর ৫০ হাজার রুপি মুচলেকা দিয়ে তিনি জামিন পান।

এদিকে, পর্নো মামলায় গত জুলাই মাসে শার্লিন চোপড়া এবং পুনম পাণ্ডের অন্তর্বর্তী জামিন মঞ্জুর করেছিল মুম্বাই হাইকোর্ট। ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তাদের বিরুদ্ধে কোনোরকম শাস্তিমূলক ব্যবস্থাগ্রহণ করা যাবে না, জানিয়েছিল আদালত। পরে সেই সময়সীমা বাড়িয়ে দেওয়া হয় ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত। শার্লিন ও পুনম যদিও স্পষ্ট জানিয়েছেন, অ্যাডাল্ট ছবিতে অভিনয় করতে রাজ কুন্দ্রা বাধ্য করেছিল তাদের।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ