সার্বিয়ার ক্যাম্পে ড্রোন পাঠিয়ে গোয়েন্দাগিরি চালিয়েছে ব্রাজিল!

- Advertisement -

বিশ্বফুটবলের সবচেয়ে সফল দল ব্রাজিল। বিশ্বকাপের মঞ্চেও সবচেয়ে বেশি শিরোপাও জিতেছে সাম্বার দেশ। সেই ব্রাজিল কিনা গুপ্তচর পাঠিয়ে জানতে চেষ্টা করেছে সার্বিয়ার পরিকল্পনা! এমনই খবর বাতাসে ভাসছে ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচের আগে। যদিও সার্বিয়ান কোচ এমন খবরকে গুজব বলে উড়িয়ে দিতে চাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) লুসাইল স্টেডিয়ামে কাতার বিশ্বকাপের হট ফেবারিট ব্রাজিল মুখোমুখি হচ্ছে সার্বিয়ার। ফুটবলের অর্জনে কিংবা ইতিহাসে ব্রাজিলের ধারেকাছে না থাকলেও সার্বিয়ার আছে দুর্দান্ত একটা দল। দুসান ভ্লাহভিচ, দুসান তাদিচ, লুকা জভিচ, সার্জ মিলানকোভিচ স্যাভিচদের নিয়ে দারুণ এক দল সার্বিয়া। আর্জেন্টিনা ও জার্মানির মতো ফেবারিট দলের পরিণতি দেখার পর ব্রাজিল যে ভালোমতো প্রস্তুতি নিয়েই নামবে তা বলাই যায়।

প্রতিপক্ষের যুদ্ধকৌশল জানা গেলে প্রস্তুতি নেয়াটা অনেকটাই সহজ। যুদ্ধের ময়দানে গুপ্তচর পাঠিয়ে প্রতিপক্ষের খুঁটিনাটি জানার বিষয়টা তো বহুল প্রচলিত। ফুটবলের ময়দানেও চলে গোয়েন্দাগিরি। ২০ বছর থেকে হেক্সা মিশনে মরিয়া ব্রাজিল এবার শিরোপাটা জিততে চায় যে কোন মূল্যে। তাই বলে ড্রোন পাঠিয়ে গোয়েন্দাগিরি! গুজব যদি সত্যি হয়ে থাকে তবে সার্বিয়ার বিপক্ষে এটাই করেছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

আল রাইয়ানে আল আরাবি স্পোর্টস কমপ্লেক্সে রাস্তার এপারে-ওপারে বেসক্যাম্প ব্রাজিল ও সার্বিয়ার। এখানে বসেই নাকি অদূরে প্রতিপক্ষের অনুশীলন মাঠে ড্রোন পাঠিয়ে ব্রাজিল বুঝতে চেষ্টা করেছে প্রতিপক্ষের কৌশল। যদিও এই খবর বিশ্বাস করেননি সার্বিয়ার কোচ দ্রাগান স্তয়কোভিচ। এমন খবরে বেশ অবাক তিনি। সাফ জানিয়ে দিলেন, এমনটা কেন করতে যাবে ফুটবলের এই পরাশক্তি!

তিনি বলেন, ‘ব্রাজিল কেন আমাদের ওপর ড্রোন উড়িয়ে গোয়েন্দাগিরি চালাবে? তাদের এসবের প্রয়োজন নেই। ব্রাজিল ফুটবলের সুপার পাওয়ার। আমরা এমন কিছু নই, যে তাদের ড্রোন উড়িয়ে কৌশল বুঝতে হবে।’

গোয়েন্দাগিরি করে খুব একটা লাভ হবে না দাবি করে তিনি উড়িয়ে দিচ্ছেন এমন খবর। গোটা বিষয়টাকে গুজব হিসেবেই দেখছেন তিনি। স্তয়কোভিচ বলেন, ‘আমি মনে করি এটা পুরোপুরি ভুল একটা খবর, গুজব। এটা যদি সত্যও হয়, ব্রাজিল যদি সত্যি সত্যিই ড্রোন ওড়ায়, তাহলে আমি মনে করি, তাদের বিশেষ কিছু খুঁজে পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।’

ব্রাজিল স্কোয়াডে মোট ৯জন ফরোয়ার্ড রেখেছেন কোচ তিতে। তার দলের বিপক্ষে যে শুরু থেকেই আক্রমণে ঝাঁপিয়ে পড়বে নেইমার-ভিনিসিউসরা, তা ভালো করেই জানেন স্তয়কোভিচ। তবে তার দল যে বিনা চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দেবে না পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের তাও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমাদের বিপক্ষে ব্রাজিল ৪ স্ট্রাইকার খেলাবে, এটা নিশ্চিত। কিন্তু, রক্ষণে খেলবে কারা? আদৌ কি কেউ খেলবে?’

ব্রাজিলকে শ্রদ্ধার চোখে দেখলেও ভয় পেতে নারাজ সার্বিয়ার কোচ। তাই জয়ের জন্যই যে খেলবেন, জানিয়ে দিয়েছেন সেটাও।

তিনি বলেন, ‘ব্রাজিল দুর্দান্ত দল। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন তারা। দুনিয়ার অন্যতম সেরা দল। আমি মনে করি, ব্রাজিলের দলটি এ মুহূর্তে তাদের সোনালি প্রজন্ম। সার্বিয়ার জন্য খুবই কঠিন একটা ম্যাচ অপেক্ষা করে আছে। প্রতিটা ম্যাচই ০-০ অবস্থায় শুরু হয়, তাই আমাদের সুযোগ থাকবে জেতার। তবে এটা বলতে পারি আমরা কাউকে ভয় পাই না।’

গত বিশ্বকাপেও গ্রুপ পর্বে একই গ্রুপে ছিল ব্রাজিল ও সার্বিয়া। সেবারের দেখায় পাওলিনহো ও থিয়াগো সিলভার গোলে ২-০ গোলে জিতেছিল সাম্বাবয়রা। তবে এবার তার দল আগের চেয়ে পরিপক্ক। আগের বিশ্বকাপে খেলা বেশিরভাগ খেলোয়াড় আছেন এবারও। তাই নিজের দল নিয়ে স্তয়কোভিচের মূল্যায়ন, ‘আমরা এখন অনেক পরিণত দল। আমাদের খেলোয়াড়েরা বিশ্বকাপে আগে খেলে আত্মবিশ্বাসী, তবে এবারের বিশ্বকাপ আমাদের জন্য নতুন এক চ্যালেঞ্জ।’

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ