সুনামগঞ্জের হাওর পারের গর্ব, ভাটি বাংলার কৃতি সন্তান সুরঞ্জিত

সুনামগঞ্জের হাওর পাড়ের চাঁদ সুরঞ্জিত তিনি হচ্ছেন সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার কৃতি মানব, বিশিষ্ট পার্লামেন্টারিয়ান, আইন প্রনেতা সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের পিতার নাম স্বগীয় দেবেন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত, মাতার নাম স্বগীয় সুমতিবালা সেনগুপ্ত। সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত যখন মায়ের গর্বে তখন উনার বাবা মারা যান। জন্মের ১৪ বছর পর হারান জন্মদাত্রী মাকে। ১১ বছর বয়সে উনার ভাই বোন উনাকে জোর করে কলকাতায় নিয়ে যান, কলকাতায় নেয়ার তিন মাসের মাথায় পালিয়ে দিরাই চলে আসেন এই ভাটির পুরুষ।

তারপর তিনি সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে আলো বাতাসে একাই বড় হোন, এবং দিরাইয়ের স্থানীয় লোকজন উনার অভিবাবক হিসাবে লালন পালন করেন। ভাটির কিংবদন্তী দিরাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে মেট্রিকুলেশন পাশ করে সিলেট এমসি কলেজে এইচএসসি’তে ভর্তি হন। স্কুল জীবন থেকেই অভিনয়ের পারদর্শিতা ছিল তার। কলেজে বিভিন্ন নাটক মঞ্চায়ন করে তিনি সকলের ভালবাসার পাত্র হয়ে উঠেন। কলেজে পড়াকালীন সময়েই ছাত্র ইউনিয়ের রাজনীতির সাথে জড়িয়ে পরেন। এইচএসসি পাসের পর ভর্তি হন প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। ইতিহাস বিভাগে ভর্তি হয়ে জগন্নাথ হলে থাকতেন তিনি। তখন তিনি মঞ্চাভিনেতার শ্রেষ্ঠ পুরষ্কার পেয়েছেন কয়েকবার। তিনি তার নিজের মেধা আর প্রজ্ঞায় স্থান করে নেন ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।


আরও পড়ুন>>


১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলনে সামনের সারিতে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া সেন গুপ্ত ১৯৬৯ সালের গনভ্যুত্থানে রেখেছিলেন অনন্য ভুমিকা। ঢাকা সেন্ট্রাল ল কলেজ থেকে এলএলবি পাস করেন। ১৯৭০ সালে সাধারণ নির্বাচনে ন্যাপ থেকে কুঁড়েঘর মার্কা নিয়ে দেশের সর্বকনিষ্ঠ প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে চমক লাগিয়ে দেন। তার নির্বাচনী এলাকা ছিল (দিরাই, শাল্লা, জামালগঞ্জ)।১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন তিনি ৫নং সেক্টরের বালাট সাব-সেক্টর কমান্ডার হিসেবে দ্বায়িত্বই শুধু পালন করেননি বরং বীরদর্পে করেছেন অনেক সম্মুখ যুদ্ধ।

১৯৭২ সালে গণপরিষদ গঠিত হলে তিনি ছিলেন একমাত্র বিরোধী দলিয় সদস্য। তার গঠনমুলক সমালোচনা আর বিভিন্ন তির্যক মন্তব্যের কারনে বঙ্গবন্ধু থাকে খুব ভালবাসতেন এবং উৎসাহ দিতেন। বঙ্গবন্ধু তাকে বলতেন ” সুরঞ্জিত তুমিই আমার একমাত্র গনতন্ত্র”। আর এরপর থেকে আর পেছনে থাকাতে হয়নি ভাটির এই সিংহ পুরুস কে। একমাত্র বিরোধী দলিয় সদস্য হিসেবে ছিলেন স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য। শুধু তাই নয় অস্ট্রেলিয়ার সংবিধান প্রনয়নকারীদের মধ্যে একজন ছিলেন আমাদের সিলেট বিভাগের ও ভাটি বাংলার কৃতি সন্তান আমাদের অংহকার।


আরও পড়ুন>>


১৯৭৩, ১৯৮৯, ১৯৮৬, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১, ২০০৮, ২০১৪ সালে অনুস্টিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি এমপি নির্বাচিত হন। ৮ বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত স্বাধীন বাংলাদেশের সকল গনতান্ত্রিক অর্জনের সফল অংশীদার। ২০০১ইং সনে তিনি সুনামগঞ্জ ০১ আসনে সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। নির্বাচনের মধ্য দিয়ে অনেক দুর থেকে উনার রাজনৈতিক দূরদর্শিতা দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল। যদিও এই প্রাণপ্রিয় নেতার সাথে সবার ছিলো একটা গভীর সম্পর্ক। অনেক স্মৃতি আজোও মনে পড়ে অনেক ঘটনা। যা জীবনে ভুলতে পারবো না কোনদিন। বিরোধী দলে থাকাকালীন এই মহান নেতার আত্মত্যাগ দেশবাসী
চিরদিন মনে রাখবে। তার মেধা,শ্রম,রক্ত, ঘাম দিয়ে তিনি এই দেশকে অসাম্প্রদায়িক করে তুলতে যে ত্যাগ করেছেন তা আজীবন স্বরণীয় হয়ে থাকবে। তিনি ছিলেন অসম সাহসী একজন রাজনৈতিক যোদ্ধা। এই দেশ যতদিন থাকবে, আওয়ামীলীগ ততদিন থাকবে, স্বাধীনতার চেতনা যতদিন থাকবে ততদিন থাকবেন ভাটির পুরুষ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ভালো থাকুন পরপারে।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

লেখক

সর্বশেষ সংবাদ

প্রেমিকাকে দিয়ে গণধর্ষণ মামলায় ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন নিজেই

ফেনীর সোনাগাজীতে প্রেমিকাকে দিয়ে প্রতিপক্ষের লোকদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণ মামলা সাজাতে গিয়ে আরিফুল ইসলাম সাকিব নামে এক যুবক ধর্ষণ মামলায় নিজেই ফেঁসে গেছেন। রোববার (১৮ অক্টোবর)...

লক্ষ্মীপুরে বিএনপি নেতাকর্মীসহ ৬১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুরে সড়কে ফাঁদ পেতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা তাজুল ইসলাম ভূঁইয়া ও মনির হোসেন মনুর ওপর হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। সোমবার...

তানোরে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরন মামলার আসামি গ্রেপ্তার

সোহানুর রহমান, পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি ll রাজশাহীর তানোরে ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরন মামলার আসামি শেরপুর জেলার নকলা উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার করেছে তানোর থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত শরিফুল...

স্থানীয় সরকারের ২ শতাধিক প্রতিষ্ঠানের ভোট মঙ্গলবার

সারা দেশে জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও ইউনিয়ন পরিষদসহ দুই শতাধিক প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন ও উপনির্বাচন মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হবে। এদিন সকাল ৯টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল...
%d bloggers like this: