স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করে নিরাপত্তাহীনতায় গৃহবধু

- Advertisement -

যৌতুক মামলায় শরীয়তপুর ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট থেকে জামিন পেয়েই মামলার বাদিনীকে হত্যার হুমকিসহ শিশু সন্তানকে অপহরণের চেষ্টা করেছে স্বামী শামীম মাঝি।

শরীয়তপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের মিরচান সরদারের মেয়ে আমেনা আক্তার একই ওয়ার্ডের তার যৌতুকলোভী স্বামী শামীম মাঝির বিরুদ্ধে আদলতে মামলা করে শিশু সন্তান নিয়ে এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন। এ বিষয়ে গৃহবধু আমেনা আক্তার শনিবার পালং মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

জানা গেছে, ২৫ নবেম্বর শরীয়তপুর ম্যাজিস্ট্রেট আদালত থেকে যৌতুক মামলায় জামিন পায় শামীম মাঝি। ওইদিন রাত সাড়ে ১০টায় আসামী শামীম মাঝি একই এলাকায় আমেনা আক্তারের বাবার বাড়ির নিকট ওঁৎ পেতে থাকে এবং তার শিশু সন্তান সানবীর হাসানকে অপহরণের চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয় লোকজনের বাধার মুখে সে পালিয়ে যায়। বর্তমানে আমেনা আক্তারকে হত্যার হুমকি দিচ্ছে সে। এতে শিশু সন্তান নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে আমেনা আক্তার। আমেনা আক্তার জানান, ২০১৬ সালের ১১ সেপ্টেম্বর একই এলাকার শামীম মাঝির সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তার পিতার কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা আনার জন্য চাপ প্রয়োগ করে শামীম মাঝি। এতে অসম্মতি জানায় আমেনা আক্তার। এরপর থেকেই আমেনা আক্তারের উপর শুরু হয় শারিরীক নির্যাতনসহ নানা অত্যাচার। অবশেষে ২২ নবেম্বর স্বামী শামীম মাঝিসহ ৩ জনকে আসামী করে যৌতুক বিরোধ আইনে শরীয়তপুর চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মামলা করেন আমেনা আক্তার। ২৫ নভেম্বর মামলার বাদিনীর অনুপস্থিতিতেই শরীয়তপুর ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট থেকে যৌতুক মামলায় জামিন পান প্রধান আসামী শামীম মাঝি।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

প্রতিবেদক

সর্বশেষ সংবাদ