৫ কোটি টাকার হদিস নেই, আতঙ্কে এসিসিএফ ব্যাংকের গ্রাহকরা

গ্রাহকদের সঞ্চিত কোটি কোটি টাকার কোনো হদিস দিতে পারছে না আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক। বেশি মুনাফার লোভে ব্যাংকের গাইবান্ধা শাখায় ৪০০ গ্রাহক প্রায় ৫ কোটি টাকা জমা রাখে।

সম্প্রতি গ্রাহকরা মেয়াদোত্তীর্ণ ডিপিএস ও ফিক্সড ডিপোজিটের জমাকৃত টাকা আনতে গেলে গ্রাহকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার ও নানারকম টালবাহানা করতে থাকেন ব্যাংকের কর্মকর্তারা।

গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকে গিয়ে গেটে তালা ঝুলতে দেখে বিক্ষোভ করেন গ্রাহকরা। পরে সদর থানাসহ বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

সদরের ছয়ফুল ইসলামসহ ২২ জন গ্রাহক গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের জিএম রফিউল কাদের খন্দকার, ম্যানেজার শাহ মো. আবু তারিক আজিজ রাহী, কর্মকর্তা রাবেয়া খাতুন, এটিএম কামরুজ্জামান কল্লোল, নুরুন্নবী সরকার রনির বিরুদ্ধে ব্যাংকে গচ্ছিত টাকা ফেরত না দেয়ার অভিযোগ করেন। টাকা চাইতে গেলে তারা গ্রাহকদের উল্টো হয়রানি ও ভয়ভীতি দেখান বলে লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।


আরও পড়ুন>>


এ ব্যাপারে কথা বলতে গেলে ব্যাংকে ওঠার সিঁড়ির গেটে তালাবদ্ধ দেখা যায়। পরে মোবাইলে যোগাযোগ করে হলে ব্যাংকের জিএম রফিউল কাদের খন্দকার বলেন, ‘এই শাখায় চার শতাধিক গ্রাহকের প্রায় ৫ কোটি টাকা গচ্ছিত আছে। ব্যাংকের চেয়ারম্যান একটি মামলায় কারাগারে থাকায় টাকা প্রদান করা সম্ভব হচ্ছে না। আগামী ২৭ জানুয়ারির মধ্যে গ্রাহকদের টাকা ফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে, এটা পুলিশের কাজ নয় দাবি করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজার রহমান সময় সংবাদকে বলেন।

এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Leave a Reply

লেখক

সর্বশেষ সংবাদ

%d bloggers like this: