Homeজাতীয়ফ্রান্স সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ফ্রান্স সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্রান্স সফরের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মারি মাসদুপুই। সেখানে বাংলাদেশ বিমানের কাছে উড়োজাহাজ বিক্রির বিষয়, নিজস্ব সার্বভৌম পৃথিবী-পর্যবেক্ষণ স্যাটেলাইট ও এয়ারবাস ক্রয় চুক্তিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হতে পারে বলেও জানান তিনি।

বুধবার (২২ মে) ঢাকায় নিজের বাসভবনে সাংবাদিকদের রাষ্ট্রদূত এ কথা জানান। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্যারিস সফরের তারিখ এখনও নিশ্চিত করা হয়নি বলেও জানান মারি মাসদুপুই।

তিনি বলেন, ‘দুটি এয়ারবাস ক্রয়ের আলোচনা ভালো চলছে এবং আমরা আশা করি, শিগগির ক্রয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে। শেখ হাসিনার আসন্ন সফরের সময় চুক্তিগুলো সই হতে পারে।’

ফ্রান্স ও বাংলাদেশের মধ্যে কৌশলগত সহযোগিতার বিষয়ে মাসদুপুই বলেন, প্যারিস মহাকাশ সংযোগ, প্রতিরক্ষা, ডিজিটাল ও সাইবার এবং জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত বিষয়গুলোর ওপর জোর দিয়েছে।

ফ্রান্সের ইন্দো-প্যাসিফিক দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়ে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক আইনের ভিত্তিতে এবং সবার জন্য অভিন্ন সমৃদ্ধির সঙ্গে মুক্ত, উন্মুক্ত, শান্তিপূর্ণ, নিরাপদ এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের বিষয়ে ঢাকা ও প্যারিস একই অবস্থানে রয়েছে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘আমাদের ইন্দো-প্যাসিফিক ভিশন বাস্তবায়নে বাংলাদেশ অবশ্যই ফ্রান্সের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। আপনার দেশের অবস্থানের কারণে, আপনাদের গুরুত্বের কারণে, জনসংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং পরিপ্রেক্ষিতে এই রূপরেখা দেয়া হচ্ছে।’

প্যারিস ও ঢাকা জ্বালানি, খাদ্য, জাহাজ নির্মাণ এবং প্রকৌশলের মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশি ও ফরাসি কোম্পানিগুলোর আগ্রহ লক্ষ্য করছে বলেও জানান তিনি।

রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘আমার দেশ আত্মবিশ্বাসী যে, বাংলাদেশ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভেতরে ও বাইরে নিরাপত্তা পরিস্থিতি বজায় রাখতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেবে।’

আন্তর্জাতিক ইস্যুতে মাসদুপুই বলেন, ‘রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে ফ্রান্সের ভূমিকা নিয়ে ব্যাপক তথ্যের হেরফের হয়েছে। লক্ষ্য করেছি, কিছু বাংলাদেশি ইউটিউব চ্যানেল এবং অনলাইন মিডিয়া কিছু ভিডিও আপলোড করেছে যাতে বাংলাদেশিদের বোঝানো হয়েছে, ইউক্রেনে ফ্রান্সের সৈন্য রয়েছে। কিছু রেজিমেন্ট, ইউনিট বা ব্যাটালিয়নের নির্দিষ্ট নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এটি একমাত্র দেশ নয় যেখানে এমনটি ঘটছে। তবে দেখানো হচ্ছে, বর্তমান রাশিয়ার দৃষ্টিতে বাংলাদেশ তাদের টার্গেট দেশগুলোর মধ্যে একটি।’

সর্বশেষ খবর

Exit mobile version